ভারতের আদালতে গঙ্গা ও যমুনাকে ‘জীবন্ত মানব সত্ত্বা’ ঘোষণা

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৮:১৭, মার্চ ২১, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:২২, মার্চ ২১, ২০১৭

লাখ লাখ মানুষ গঙ্গা ও যমুনাকে দেবী বলে মেনে থাকেগঙ্গা ও যমুনা নদীকে ‘জীবন্ত মানব সত্ত্বা’ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে ভারতের উত্তরাখণ্ডের উচ্চ আদালত। সোমবার উত্তরাখণ্ডের হাইকোর্ট কেন্দ্র সরকারকে নির্দেশ দেয় গঙ্গা ও যমুনা নদীকে ভারতের 'জীবন্ত মানব সত্ত্বা' বলে স্বীকৃতি দিতে হবে। এ স্বীকৃতির মধ্য দিয়ে প্রচণ্ড দূষণের শিকার নদীগুলোর ‘সংরক্ষণ’ করা যাবে বলে মনে করছে আদালত। কেননা, এখন নদী দূষণও মানুষকে ক্ষতি করার সমান্তরাল বলে বিবেচিত হবে।  
উল্লেখ্য, গঙ্গা এবং যমুনা বহুদিন ধরেই মারাত্মক দূষণের শিকার। এই দুটি নদীকেই ভারতের বেশিরভাগ হিন্দু ধর্মাবলম্বী তাদের দেবী হিসেবে বিবেচনা করে। আদালত বলেছে, এই দুটি নদীর ব্যাপারে হিন্দুদের অগাধ বিশ্বাস রয়েছে এবং তারা সম্মিলিতভাবে এই দুই নদীর সঙ্গে এক ধরণের একাত্মতা বোধ করে। এ দুই নদীকে জীবন্ত মানব সত্ত্বা ঘোষণা করার পাশাপাশি উত্তরাখন্ডের দুজন সরকারি কর্মকর্তাকে এই দুটি নদীর আইনগত অভিভাবক নিয়োগ করা হয়েছে।
এই মাসের শুরুর দিকেই উত্তরাখণ্ড হাইকোর্টে গঙ্গার দূষণ প্রতিরোধ করতে এবং গঙ্গার সাফাই অভিযানে গুরুত্ব দিয়ে কোনও পদক্ষেপ না নেওয়ায় কেন্দ্র ও উত্তরাখণ্ড রাজ্য সরকারের ভর্ৎসনা করেন। মৃতপ্রায় সরস্বতী নদীর জন্য যেভাবে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে সেই তুলনায় গঙ্গা নদীর জন্য কোনও নির্দিষ্ট ফলপ্রসু পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি বলেও অসন্তোষ প্রকাশ করেছিল হাইকোর্ট।
কোনও নদীকে 'জীবন্ত মানবিক সত্তা' বলে ঘোষণা এটা প্রথম নয়। এর আগে নিউজিল্যান্ডের হোয়াংগানুই নদীকেও একজন জীবন্ত মানুষের মতো মানবিক অধিকার দেওয়া হয়েছিল। সূত্র: বিবিসি

/এফইউ/

লাইভ

টপ