সিরিয়ার রাসায়নিক হামলা ‘মানবতার প্রতি অপমান’: ট্রাম্প

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৯:৪০, এপ্রিল ০৬, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ১০:০২, এপ্রিল ০৬, ২০১৭

ডোনাল্ড ট্রাম্পসিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করে সরকারি বাহিনীর হামলার নিন্দা জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মার্কিন প্রেসিডেন্ট এ হামলাকে ‘মানবতার প্রতি অপমান’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।  বুধবার জর্ডানে বাদশা আবদুল্লাহ’র সঙ্গে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের একথা বলেন ট্রাম্প। বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

হামলাকে মানবতার অপমান ট্রাম্প বলেন, ‘যখন নিষ্পাপ সন্তানদের হত্যা করা হয়, নিষ্পাপ শিশুদের হত্যা করা হয়, ছোট্ট ছেলেমেয়েদের... এর মধ্য দিয়ে অনেকগুলো সীমা অতিক্রম করা হয়।’

অবশ্য ট্রাম্প সিরিয়ার মিত্র রাশিয়া সম্পর্কে কিছু বলেননি। রাশিয়া দাবি করছে, বিদ্রোহীদের হাতে রাসায়নিক অস্ত্র মজুদ রয়েছে। তবে যুক্তরাষ্ট্র ও জাতিসংঘ বলছে, সিরিয়াকে রক্ষা করতেই রাশিয়া এটা বলছে।

ট্রাম্প বলেন, ‘আমি আপনাদের বলতে চাই, গতকাল যা ঘটেছে তা আমার কাছে গ্রহণযোগ্য নয়। আমি আরও বলতে চাই, এরই মধ্যে সিরিয়া ও আসাদ সম্পর্কে আমার ধারণা অনেকটাই পাল্টে গেছে।’

কিছুদিন আগে সিরিয়া সম্পর্কে নতুন নীতি গ্রহণের বিষয়ে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে ট্রাম্প বলেছিলেন, আপনারা দেখতে পাবেন।

সিরিয়ার ইদলিব প্রদেশে রাসায়নিক হামলায় অন্তত ৭০ জনের প্রাণহানি হয়েছে। সিরিয়ার বিমান বাহিনী রাসায়নিক হামলা চালানোর বিষয় অস্বীকার করেছে। হামলার জন্য সিরিয়ার বিদ্রোহীদের দায়ী করেছে প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের মিত্র রাশিয়া। মস্কোর দাবি, বিদ্রোহীরা ওই রাসায়নিক গ্যাস মজুত করে রেখেছিল। সিরীয় বিমান হামলায় সেই গুদাম আক্রান্ত হলে বিস্ফোরণ ঘটে। তবে রাশিয়ার এমন দাবি জোরালোভাবে প্রত্যাখ্যান করে নিরাপত্তা পরিষদের অন্য সদস্য দেশগুলো। তারা আসাদ'কে থামাতে রাশিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।  

এর আগে দামেস্কের কাছে অবস্থিত ঘৌতা এলাকার সম্ভাব্য রাসায়নিক হামলায় প্রায় এক হাজার ৩০০ জন নিহত হয়েছিলেন। ওই সময় বিষাক্ত সারিন গ্যাস দিয়ে হামলা চালানো হয়েছিল। সূত্র: বিবিসি, রয়টার্স।

/এএ/

লাইভ

টপ