জর্ডানের জন্য আরও ৫০ কোটি ডলার সহায়তার প্রতিশ্রুতি কাতারের

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৩:২২, জুন ১৪, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ০৩:২৮, জুন ১৪, ২০১৮

আর্থিক অব্যবস্থাপনায় বিপর্যস্ত জর্ডানের জন্য আরও ৫০ কোটি মার্কিন ডলার সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে কাতার। দেশটির সংকট মোকাবিলায় সৌদি আরব, আমিরাত ও কুয়েতের ২৫০ কোটি ডলার সহায়তার ঘোষণার একদিন পর কাতার এই ঘোষণা দিল। বুধবার আম্মানে জর্ডানের বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহর সঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বিন আবদুলরাহমান আল থানির বৈঠকে নতুন সাহায্যের ঘোষণা দেয় দেশটি। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এই অর্থ সাহায্যের ঘোষণার কথা জানিয়েছে।জর্ডানের বাদশাহের সঙ্গে কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠক
সম্প্রতি আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) পরামর্শে কর আইনে সংস্কারের প্রতিবাদে জর্ডানে বিক্ষোভ শুরু হয়। নতুন আইনে আয়কর বাড়ানোর প্রতিবাদের মুখে পদত্যাগে বাধ্য হন প্রধানমন্ত্রী হানি আল মুলকি। পদত্যাগের পর আবদুল্লাহ শিক্ষামন্ত্রী ওমর আল রাজাজকে সরকার গঠনের আহ্বান জানান বাদশাহ আবদুল্লাহ। দেশটির অর্থনৈতিক সংকট উত্তরণে সৌদি আরবের ডাকা বৈঠক থেকে রবিবার (১০ জুন) তাদের পাশাপাশি ২৫০ কোটি ডলার সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দেয় কুয়েত ও আমিরাত।

তিন দেশের এই সহায়তার অর্থ জর্ডানের কেন্দ্রীয় ব্যাংকে আমানত হিসেবে রাখার পাশাপাশি বিশ্ব ব্যাংক থেকে ঋণ নিতে জর্ডানের জামানত ও সরাসরি বাজেট সহায়তা হিসেবে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। এছাড়া সরকারের বিভিন্ন আর্থিক ও উন্নয়ন প্রকল্পে নগদ অর্থ হিসেবেও এই অর্থ দেওয়ার ঘোষণা আসে।

এর একদিন পর জর্ডানের জন্য আরও ৫০ কোটি ডলার সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিল কাতার। সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন চার দেশের অবরোধের কবলে থাকা কাতার উপসাগরীয় দেশগুলোতে ১০ হাজার জর্ডানের নাগরিকের কর্মসংস্থানের পাশাপাশি জর্ডানের অবকাঠামো ও পর্যটন খাতে বিনিয়োগের জন্য এই সাহায্য ঘোষণা করেছে।  

গত ১০ জুন আম্মানভিত্তিক সাংবাদিক দাউদ কুতাব আল জাজিরাকে বলেছেন, ‘ইসলামের তৃতীয় পবিত্র মসজিদ আল আকসা রক্ষায় ভূমিকা রাখায় জর্ডানকে সহায়তা দেওয়া আরব দেশগুলোর দায়িত্ব বলে মনে করে আম্মান।’ ওই মসজিদ ইসরায়েলে অবস্থিত। আর মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মধ্যে কেবলমাত্র জর্ডান ও মিশরের সঙ্গে ইসরায়েলের আনুষ্ঠানিক কূটনৈতিক সম্পকর্ রয়েছে।

দাউদ কুতাব জানিয়েছেন, জর্ডানকে দেওয়া আরব রাষ্ট্রগুলোর বেশিরভাগ সহায়তার পরিমাণ বর্তমানে কমে এসেছে। সরাসরি নির্দিষ্ট কর্মসূচিতে দেওয়া এই সাহায্য দেশটির বাজেটে কোনও সহায়তা করে না।

 

/জেজে/

লাইভ

টপ