বাংলাদেশের মাটিতে জাকির নায়েকের স্থান হবে না: প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১১:৫০, জুলাই ০৮, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:০৬, জুলাই ০৮, ২০১৮

বিতর্কিত ইসলামি চিন্তাবিদ জাকির নায়েককে কখনও বাংলাদেশের মাটিতে জায়গা দেওয়া হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম। শনিবার (৭ জুলাই) দুপুরে দিল্লির গবেষণা প্রতিষ্ঠান অবজার্ভার রিসার্চ ফাউন্ডেশনে এক মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। ভারতীয় বার্তা সংস্থা প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়া-পিটিআই এইচ টি ইমামকে উদ্ধৃত করে এ খবর জানিয়েছে।

জাকির নায়েক
২০১৬ সালের জুলাইয়ে ঢাকার গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলার পর নতুন করে আলোচনায় আসেন জাকির নায়েক। হামলাকারীদের অন্তত দুজন জাকির নায়েকের টেলিভিশন বক্তব্য অনুসরণ করতো বলে জানার পর তোলপাড় শুরু হয়। ওই বছরই ভারত ছেড়ে যান জাকির। পরে সৌদি আরবসহ বিভিন্ন দেশ ঘুরে মালয়েশিয়ায় আশ্রয় নেন তিনি। ভারতে বিভিন্ন সময়ে আটক হওয়া জঙ্গিরাও জাকির নায়েককে অনুসরণ করতো বলে অভিযোগ রয়েছে। পাটনার গান্ধী ময়দান ও বুদ্ধগয়া বিস্ফোরণে আটক জঙ্গিদের কাছ থেকেও জাকিরের বক্তৃতার সিডি ও বই উদ্ধারের দাবি করেছিল ভারতের জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ)।

জাকির নায়েককে বাংলাদেশে আশ্রয় দেওয়া হবে কিনা; শনিবার দিল্লিতে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় এক সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে এইচ টি ইমাম জানান, তাকে বাংলাদেশে জায়গা দেওয়া হবে না। এ ব্যাপারে ভারতের সঙ্গে সহযোগিতাপূর্ণ মনোভাব নিয়ে কাজ করবে বাংলাদেশ। তিনি বলেন, ‘আমরা পুরোপুরিভাবে ভারতকে সহযোগিতা দেব। সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতিতে সংকল্পবদ্ধ সরকার। আমাদের প্রতিবেশী দেশগুলোর কাছে শত্রুভাবাপন্ন- এমন কাউকে বাংলাদেশের মাটি ব্যবহার করতে দেওয়া হবে না।’

বিভিন্ন ধর্মীয় সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ তৈরির অভিযোগে ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে মামলা করে ভারতের জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ। তার নামে বেশ কয়েকবার সমন জারি হলেও আদালতে যাননি তিনি। উগ্রবাদ প্রচারের অভিযোগে এনআইএ-এর তলবেও সাড়া দেননি বিতর্কিত এই বক্তা। তদন্তের স্বার্থে দেশে ফেরার নির্দেশ দেওয়া হলেও নায়েক ভারতে ফেরেননি।

চলতি বছরের জানুয়ারি জাকির নায়েককে ফেরত পাঠাতে মালয়েশিয়ার কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে অনুরোধ জানায় ভারত। দুই দেশের মধ্যে প্রত্যর্পণ চুক্তির আওতায় তাকে ফেরত চাওয়া হয়। বুধবার (৪ জুলাই) ভারতীয় কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়, ওই দিনই তাকে মালয়েশিয়া থেকে ভারতে ফিরিয়ে আনা হবে। এমন খবর প্রকাশিত হওয়ার পর জনসংযোগ কর্মকর্তার মাধ্যমে দেওয়া এক বিবৃতিতে জাকির নায়েক বলেন, ‘আমার ভারতে ফিরে আসার খবর ভিত্তিহীন ও মিথ্যা। অবিচার থেকে নিরাপদবোধ করার আগ পর্যন্ত ভারতে ফেরার কোনও পরিকল্পনা আমার নেই।’ বিবৃতিতে জাকির নায়েক আরও উল্লেখ করেন, অবশ্যই তিনি মাতৃভূমিতে ফিরবেন যখন তিনি মনে করবেন সরকার নিরপেক্ষ।

জাকির নায়েককে ভারতে পাঠানো হবে না বলে শুক্রবার (৬ জুলাই) স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। তার দাবি, জাকির মালয়েশিয়ায় যাওয়ার পর কোনও সমস্যা তৈরি হয়নি। তাই তাকে সেদেশে স্থায়ী বসবাসের অনুমতি দেওয়া হয়েছে বলে শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে জানান তিনি।

/এফইউ/বিএ/চেক-এমওএফ/

লাইভ

টপ