আনন্দের বন্যায় ভাসছে থাইল্যান্ড

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১১:১৩, জুলাই ১১, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:৩২, জুলাই ১১, ২০১৮

এক অভাবনীয় সফল অভিযানের মধ্য দিয়ে ‘থাম লুয়াং’ গুহা থেকে কিশোর ফুটবল দলটিকে নিরাপদে বের করে আনার পর থাইল্যান্ডজুড়ে আনন্দের বন্যা বইছে। মানুষ বেরিয়ে পড়েছেন রাস্তায়। কেউ গাড়ির হর্ন বাজিয়ে, কেউ নেচে-গেয়ে উল্লাসে মেতে উঠেছেন। কেউবা আবার সেলফি কিংবা ছবি তুলে উল্লাস প্রকাশ করছেন। দেশটির সরকার ও নৌবাহিনীও আনন্দময় প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে এ ঘটনায়।  মঙ্গলবার শেষ চার কিশোর ও তাদের কোচকে উদ্ধারের মধ্য দিয়ে প্রায় ১৭ দিনের উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার অবসান হয়েছে। গত ২৩ জুন দলটি চিয়াং রাই প্রদেশের ওই গুহায় প্রবেশ করেছিল। পুরো দলটিকে এখন চিয়াং রাই প্রাচানুকরহ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।


গত ২৩ জুন ফুটবল অনুশীলন শেষে ২৫ বছর বয়সী কোচসহ ওই ১২ কিশোর ফুটবলার গুহাটির ভেতরে ঘুরতে গিয়েছিল। কিন্তু বৃষ্টিতে গুহার প্রবেশমুখ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তারা আর বের হতে পারেনি। এরপর টানা ৯ দিন নিখোঁজ থাকার পর গত ২ জুলাই গুহার ভেতরে জীবিত অবস্থায় তাদের শনাক্ত করেন ডুবুরিরা। তিন দিনের সফল অভিযানের মধ্য দিয়ে তাদের সবাইকে বের করে আনা হয়। সফল উদ্ধার অভিযান শেষে চিয়াং রাইর এক কর্মকর্তা আবেগজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমার জীবনে একটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা এটি। সারা জীবন মনে থাকবে। আমি তাদের কথা ভেবে কেঁদেছি। এখন আমি আনন্দিত। থাইল্যান্ডের প্রত্যেক মানুষ পরস্পরকে ভালোবাসে; এ বাস্তবতায় আমি অভিভূত।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও শুভেচ্ছা বিনিময় ও অভিনন্দনের ঢল নেমেছে। ১৭ দিনের রুদ্ধশ্বাস এ উদ্ধার অভিযোনে অংশ নেওয়া দেশি-বিদেশি ডুবুরিদের প্রশংসা করে অনেকে তাদের ‘জাতীয় বীর’ আখ্যা দিচ্ছেন। বিস্তৃত এ উদ্ধার অভিযানে অংশ নেওয়া সবাইকে তাদের সাফল্যের আনন্দ উদযাপনে আমন্ত্রণ জানানোর ঘোষণা সোমবারই দিয়েছেন থাই প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চান-ওচা। জানিয়েছেন, সবপক্ষের জন্য ভোজের আয়োজন করবেন।

কিশোর ফুটবল দলটিকে বের করে আনার পর থাই নেভি তাদের ফেসবুক পাতায় লিখেছে, এটি অলৌকিক ঘটনা ছিল, নাকি বিজ্ঞান বা অন্য কিছু ছিল, তা আমরা জানি না। ১৩ ওয়াইল্ড বোয়ারের সবাইকে গুহা থেকে বের করা হয়েছে। যুক্তরাজ্যের ক্লাব ফুটবল দল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড থাই কিশোর ফুটবল দল ও তাদের উদ্ধারে কাজ করা সবাইকে ‘ওল্ড ট্রাফোর্ডে’ স্টেডিয়ামে যাওয়ার আমন্ত্রণ জানিয়েছে।

আটকে পড়াদের উদ্ধারে অভিযান শুরুর দিন রবিবার চারজন এবং সোমবার আরও চারজনকে উদ্ধার করা হয়। মঙ্গলবার ৪ জন কিশোর ফুটবলার ও তাদের কোচকে উদ্ধারের মধ্য দিয়ে শেষ হয় অভিযান। ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় বলেন, ‘থাই নেভি সিলকে এমন অসাধারণ উদ্ধার অভিযানের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে অভিনন্দন। এটা দারুণ মুহূর্ত। সবাই মুক্তি, দারুণ কাজ হয়েছে।’ জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেলের মুখপাত্র স্টিফেন সেইবার্ট তার টুইটে বলেন, ‘সাহসী কিশোর ও তাদের কোচ এবং তাদের যারা উদ্ধার করেছে তাদের অনেক প্রশংসা করতে হয়। টুইটারে দেওয়া পোস্টে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে বলেন, থাইল্যান্ডে সবাই উদ্ধার হয়ে যাওয়ায় আমরা খুবই খুশি। সারা বিশ্ব এ ঘটনায় নজর রেখেছিলো। তাদের সাহসকে শ্রদ্ধা জানাই।
সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান, সিএনএন

/বিএ/চেক-এমওএফ/

লাইভ

টপ