বছরের দ্বিতীয় বড় রাজকীয় বিয়ে, ব্রুক্সব্যাংক-ইউজিন

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৭:৩৪, অক্টোবর ১২, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:১০, অক্টোবর ১২, ২০১৮

আবার সেজেছে উইনডসর দুর্গ। এ বছরেই সেখানে অনুষ্ঠিত হয়েছে প্রিন্স হ্যারির বিয়ে। এবার অনুষ্ঠিত হলো প্রিন্সেস ইউজিনের। ২৮ বছর বয়সী ইউজিন ব্রিটেনের রানি এলিজাবেথের নাতনি। তিনি গাঁটছড়া বেঁধেছেন জ্যাক ব্রুক্সব্যাংকের (৩২) সঙ্গে। স্কিইং করার সময় সুইজারল্যান্ডে ২০১০ সালে তাদের পরিচয় হয়েছিল। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য টেলিগ্রাফ জানিয়েছে, রাজপরিবারের জ্যেষ্ঠ সদস্যদের মধ্যে প্রিন্স চার্লসের স্ত্রী ডাচেস অব কর্নওয়েল ক্যামিলা বিয়েতে অনুপস্থিত থাকবেন। তার সঙ্গে কনের বাবা প্রিন্স অ্যান্ড্রু ও মা ফার্গুসনের সম্পর্ক ভালো নয়। তাদের সুসম্পর্ক ছিল প্রিন্সেস ডায়নার সঙ্গে।

-2_OvjCiS6COCU

রানি এলিজাবেথের তৃতীয় সন্তান প্রিন্স অ্যান্ড্রু। তার ছোট মেয়ে ইউজিন। ইউজিনের মা ডাচেস অফ ইয়র্ক সারাহ ফার্গুসন। বিয়েতে ব্রাইডসমেইড হয়েছেন গায়ক রন উইলিয়ামসের মেয়ে মিয়া টিন্ডেল, তিন বছর বয়সী প্রিন্সেস শার্লট, হ্যারির ভাই প্রিন্স উইলিয়াম ও তার স্ত্রী কেট। শার্লটের ভাই পাঁচ বছর বয়সী প্রিন্স জর্জ হয়েছে ‘পেজবয়’। মেইড অব হনার হিসেবে ছিলেন বিয়ের কনের বোন প্রিন্সেস বেট্রিস। আর কনের বেস্টম্যান তার ভাই থমাস।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রানি এলিজাবেথ ও তার স্বামী প্রিন্স ফিলিপ। বিয়ের আমন্ত্রণে হাজির হয়েছেন অভিনেত্রী লিভ টেলর, মডেল নওমি ক্যাম্পবেল, ফায়ক জেমস ব্ল্যান্ট, এলি গোল্ডিংসহ অনেকে। যারা হাজির হতে পারেননি তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য একজন হচ্ছেন প্রিন্স চার্লসের স্ত্রী ডাচেস অব কর্নওয়েল ক্যামিলা। তিনি স্কটল্যান্ডে একটি কাজে ব্যস্ত। তবে যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম টেলিগ্রাফ জানিয়েছে, ক্যামিলা কেন বিয়ের অনুষ্ঠানে যাবেন না, তার কারণ অন্য কিছু। ক্যামিলাকে পছন্দ করেন না ফার্গুসন। তাদের আজ পর্যন্ত কখনও সামনাসামনি দেখা হয়নি। অন্যদিকে ভাই প্রিন্স চার্লসের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো নয় প্রিন্স অ্যান্ড্রুর। অ্যান্ড্রু-ফার্গুসন পরিবারের সুসম্পর্ক ছিল প্রিন্সেস ডায়নার সঙ্গে।

শুভাকাঙ্ক্ষী ও অতিথিরা জড়ো হয়েছিলেন উইনডসর ক্যাসেলের সেই একই স্থানে, যেখানে প্রিন্স হ্যারি গত মে মাসে বিয়ে করেছিলেন মার্কিন অভিনেত্রী মেগান মার্কেলকে। বিয়ের আনুষ্ঠানিকতার জন্য নির্ধারিত হয়েছে দুর্গের সেন্ট জর্জ চ্যাপেল। এটি ১৫ শতকে নির্মিত।

মূল অতিথি ছিলেন ৮৫০ জন। সাধারণ নাগরিকদের মধ্যে থেকে প্রায় এক হাজার ২০০ জনকে বিয়েতে দাওয়াত দেওয়া হয়েছে। তারা দুর্গের ভেতরেই ছিলেন। তবে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা দেখছেন লাইভ ব্রডকাস্টের মধ্যমে। তারা ছাড়াও দুর্গের বাইরে রয়েছেন আরও হাজারখানেক আগ্রহী মানুষ।

বিয়ের আনুষ্ঠানিকতার পর নববিবাহিত দম্পতি রানি এলিজাবেথের দেওয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছেন, যা আয়োজিত হয়েছে একই দুর্গের সেন্ট জর্জ হলে। সন্ধ্যায় উইনডসর গ্রেট পার্কের রয়্যাল লাউঞ্জে অনুষ্ঠিত হবে তাদের একটি পারিবারিক অনুষ্ঠান।

বিয়ের খরচ নিয়ে কিছুটা বিতর্ক দেখা দিয়েছে। এই বিয়ের আনুষ্ঠানিকতার জন্য করদাতাদের ২০ লাখ পাউন্ড খরচ হচ্ছে অভিযোগ করে রিপাবলিকানরা দাবি করেছে, পরিবারটির উচিত নিজেদের খরচে বিয়ে দেওয়া। তাদের যুক্তি, প্রিন্সেস ইউজিন কোনও আনুষ্ঠানিক দায়িত্ব পালন করেন না। সুতরাং তার পেছনে সরকারি কোষাগারের অর্থ খরচ করা উচিত নয়। জবাবে বার্মিংহাম প্যালেসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এটা পুলিশের বিষয়।

অতিথিদের একাংশ

 

 

/এএমএ/এমওএফ/

লাইভ

টপ