জোরপূর্বক শ্রম, চীনা পোশাক সরবরাহকারীর সঙ্গে চুক্তি বাতিল মার্কিন কোম্পানির

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৭:৪৫, জানুয়ারি ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৫২, জানুয়ারি ১১, ২০১৯

চীনের শিনজং প্রদেশের একটি শিবিরের বাসিন্দাদের জোরপূর্ব শ্রমে নিযুক্ত করার অভিযোগে চীনা একটি কারখানার কাছ থেকে পোশাক ক্রয় বন্ধ করে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের একটি কোম্পানি।  নর্থ ক্যারোলাইনাভিত্তিক ব্যাজার স্পোর্টসওয়ার নামের কোম্পানিটি জানিয়েছে,  উত্তর পশ্চিমাঞ্চলীয় চীনের হেতিয়ান টাইডা নামের সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে তারা পোশাক কেনা বন্ধ করেছে। তবে চীনের সরবরাহকারীদের সঙ্গে বাণিজ্য বাতিল করার বিষয়ে সতর্কতা জানিয়েছে বেইজিং। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান এখবর জানিয়েছে।

২০১৭ সালে চীনের পশ্চিমাঞ্চলীয় শিনজং প্রদেশে উইঘুর মুসলমানদের ওপর ব্যাপক মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ফাঁস হতে থাকে। জাতিসংঘের একটি স্বাধীন প্যানেলের হিসেবে প্রায় দশ লাখেরও বেশি উইঘুর বা অন্য অন্য জাতিগোষ্ঠীর মুসলমানদের কথিত ‘ভোকেশনাল ট্রেনিং সেন্টারে’ বিনা বিচারে আটক রাখা হয়েছে। মূলত শিনজং প্রদেশেই এসব বিনাবিচারে আটককেন্দ্র স্থাপন করেছে বেইজিং।

বুধবার নিজেদের ওয়েবসাইটে পোস্ট করা এক বিবৃতিতে ব্যাজার স্পোর্টসওয়ার বলেছে, ব্যবসায় বিতর্ক এড়ানোর সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে হেতিয়ান টাইডা বা চীনের ওই অঞ্চলের কোনও প্রতিষ্ঠান থেকে পোশাক না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

গত মাসে নিউ ইয়র্ক টাইমস জানায়, হেতিয়ান টাইডার কাছ থেকে আসা একটি টি-শার্ট বোঝাই কন্টেইনার গ্রহণ করে ব্যাজার স্পোর্টসওয়ার। নিউ ইয়র্ক টাইমস জানায়, শিনজংয়ের ওই কোম্পানিটি মুসলিম সংখ্যালঘুদের আটককেন্দ্রের কর্মীদের ব্যবহার করছে বলে চীনের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে দেখানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার চীনের পক্ষ থেকে বিদেশি কোম্পানিগুলোকে ভুল তথ্যের ভিত্তিতে বাণিজ্যিক সিদ্ধান্ত না নেওয়ার বিষয়ে সতর্ক করে দেওয়া হয়। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লু কাং এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, এই কোম্পানি যদি ভুল তথ্যের ভিত্তিতে চীনা সহযোগীদের সঙ্গে ব্যবসা ও বাণিজ্যিক সহায়তার সম্পর্ক বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয় তাহলে সেটা হবে দুঃখজনক। চীন এরই মধ্যে শ্রমশিবির বাতিল করেছে জানিয়ে তিনি দাবি করেন, শিনজংয়ের ভোকেশনাল ট্রেনিং সেন্টার কোনওভাবেই বাধ্যতামূলক শ্রম ব্যবহার করে না।

/জেজে/এএ/

লাইভ

টপ