‘যৌন কর্মী’ হত্যায় নির্দোষ প্রমাণিত হলেন অভিযুক্ত মার্কিন সীমান্ত কর্মী

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১২:৪৬, জানুয়ারি ১২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪৮, জানুয়ারি ১২, ২০১৯

সেপ্টেম্বরে চার নারীকে হত্যা ও অন্য অভিযোগ থেকে নির্দোষ প্রমাণিত হয়েছেন মার্কিন সীমান্ত রক্ষাকারী বাহিনীর ভ্রাম্যমাণ এজেন্ট জুয়ান ডেভিড অর্টিজ। মার্কিন প্রসিকিউটরদের দাবি ওই নারীরা যৌনকর্মী ছিলেন। বৃহস্পতিবার সীমান্ত শহর লারিদোর এক আদালতে যুক্তরাষ্ট্রের রাজস্ব ও সীমান্ত রক্ষাবাহিনীতে দশ বছর ধরে কর্মরত অর্টিজের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি শেষে বিচারক এই রায় দেন।মার্কিন সীমান্ত রক্ষাকারী বাহিনীর ভ্রাম্যমাণ এজেন্ট জুয়ান ডেভিড অর্টিজ

অর্টিজের বিরুদ্ধে মেলিসা রামিরেজ, ক্লদিন লুয়েরা, গুইসেলদা অ্যালিসিয়া এবং জেনেলে অর্টিজ নামে চার নারী হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছিল। এসব নারীদের প্রত্যেকের মাথায় গুলি করে লারিদো এলাকার প্রত্যন্ত সড়কে ফেলে রেখে যাওয়া হয়। কর্তৃপক্ষ জানায় পঞ্চম এক নারী ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে গেলে অর্টিচকে গ্রেফতার করা হয়। গত মাসে জেলা অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যালানিজ বলেছিলেন অর্টিজ হত্যায় দোষী প্রমাণিত হলে তার মৃত্যুদণ্ড চাইবেন তিনি।

অ্যাটর্নি অ্যালানিজ জানিয়েছিলেন অর্টিজ তদন্তকারীদের বলেছেন, এই নারীদের হত্যা করে ‘নিজের কাজ করেছেন’ তিনি। আর তিনি মনে করেন না পতিতাবৃত্তি নিয়ন্ত্রণে আইন শৃঙ্খলাবাহিনী যথেষ্ট ভূমিকা রাখছে।

অর্টিজের আইনজীবী জোয়েল পেরেজ বলেছেন তার মক্কেল অপরাধে অভিযুক্ত অন্য যেকারো মতোই নির্দোষ বলে ধরে নেওয়া হচ্ছে।

/জেজে/

লাইভ

টপ