স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ডব্লিউএইচও’র আরও কার্যকর পদক্ষেপ চান প্রধানমন্ত্রী

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:০১, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:০৪, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১৯

সবার জন্য সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আরও পদক্ষেপ নেওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, এসডিজি সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্যের লক্ষ্য অর্জন করতে বৈশ্বিক সংস্থা হিসেবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে আরও কার্যকরভাবে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে কাজ করতে হবে। জার্মানির মিউনিখে সেন্টার ফর স্ট্র্যাটেজিস অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজ এবং ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন (ডব্লিউএইচও) আয়োজিত ‘হেলথ ইন ক্রাইসিস-হু কেয়ার্স’ শীর্ষক এক গোলটেবিল বৈঠকে দেওয়া ভাষণে তিনি একথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বাংলাদেশ সরকার সর্বজনীন স্বাস্থ্য সেবা বিস্তৃত করতে বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। এক বছরের কম বয়সী শিশু ও ৬৫ বছরের বেশি বয়সী বৃদ্ধদের জন্য বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হচ্ছে।

এসডিজি-৩ ও স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য প্রধানমন্ত্রী কার্যকর, ফলপ্রসু আন্তর্জাতিক সমন্বয় ও সহযোগিতার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘বিশ্বজুড়ে ইবোলা, কলেরা ও যক্ষ্মার মতো সংক্রামক রোগের ছড়িয়ে পড়া প্রমাণ করে— প্রচলিত স্বাস্থ্য ব্যবস্থার উন্নয়ন ও রূপান্তর প্রয়োজন।’

উন্নয়নশীল ও স্বল্পোন্নত দেশগুলোতে স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য প্রত্যাশিত ও দ্রুত অর্থায়নের ওপর গুরুত্বারোপ করেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘মানুষের মৌলিক প্রয়োজনীয়তার একটি হচ্ছে স্বাস্থ্যসেবা। তাই এটাকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়া উচিত।’ তিনি বলেন, ‘এটা দুর্ভাগ্যজনক যে, আমরা আমাদের জনগণের জন্য পর্যাপ্ত স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে পারছি না। যদিও এসডিজি-থ্রি-তে স্বাস্থ্যের অধিকারকে মৌলিক অঙ্গীকার হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে।’

স্বাস্থ্যখাতে সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি বাংলাদেশ স্বাস্থ্য খাতেও উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জন করেছে। আমাদের উদ্যোগের ফলে আমরা কম খরচে ভালো স্বাস্থ্যের জন্য রোল মডেলে পরিণত হয়েছি।’

স্বাস্থ্যসেবায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিকে কাজে লাগানোর জন্য বাংলাদেশের সাফল্যও বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত বলেও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট এসডিজি’র লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সরকার এরইমধ্যে উন্নয়ন কর্মসূচি গ্রহণ করা শুরু করেছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের ভিশন ২০২১ ও ভিশন ২০৪১-এ বাংলাদেশের স্বাস্থ্য সুরক্ষাকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে।’

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) জার্মানি পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী। গত মাসে চতুর্থবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর এটাই শেখ হাসিনার প্রথম বিদেশ সফর। দুই দিনের জার্মানি সফর শেষে তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাত যাবেন। সূত্র: বাসস।

 

/এএ/এপিএইচ/

লাইভ

টপ