ভেনেজুয়েলা ইস্যুতে কিউবাকে যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৭:১১, মে ০১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৭:১৪, মে ০১, ২০১৯

ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর সরকারকে ক্ষমতায় রাখতে কিউবার সেনাবাহিনী সহায়তা দিচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছে যুক্তরাষ্ট্র। ভেনেজুয়েলায় কিউবার বাহিনীর তৎপরতা বন্ধ না হলে দেশটির ওপর সর্বাত্মক নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।  এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন অভিযোগ তোলেন মাদুরোকে কারাকাসের ক্ষমতায় রেখেছে কিউবার সেনাবাহিনী। মার্কিন প্রেসিডেন্টের হুমকি প্রত্যাখান করেছেন কিউবার প্রেসিডেন্ট মিগুয়েল ডায়াজ ক্যানেল।

নির্বাচনি কারচুপির অভিযোগ আর অর্থনৈতিক সংকটের বিরুদ্ধে এ বছরের শুরুতে ভেনেজুয়েলায় বিক্ষোভ শুরু হয়। বিক্ষোভের সুযোগে ২৩ জানুয়ারি নিজেকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন বিরোধীদলীয় নেতা হুয়ান গুইদো। প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর সরকারকে অবৈধ দাবি করে নিজেকে বৈধ অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রসহ ৫০টিরও বেশি দেশ তাকে স্বীকৃতি দিলেও প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো সরকার অভিযোগ করে আসছে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তায় অভ্যুত্থান প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন গুইদো।

মঙ্গলবার এক ভিডিও বার্তায় আকস্মিক অভ্যুত্থানের ঘোষণা দেন গুইদো। ভিডিওতে তার সঙ্গে বেশ কয়েকজন সামরিক সদস্যকেও দেখা যায়। ইতোমধ্যে এই অভ্যূত্থানে সমর্থন ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র।তবে সেনাবাহিনী তার সঙ্গেই আছে বলে দাবি করেন প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো। এক টুইটে তিনি দাবি করেন, সেনা সদস্যরা তাকে আশ্বস্ত করেছেন যে তারা জনগণ, সংবিধান ও জন্মভূমির সঙ্গেই আছেন। দিনভর ভেনেজুয়েলার রাস্তায় বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সহিংসতায় জড়িয়েছে মাদুরোর অনুগত আইনশৃঙ্খলাবাহিনী।

মঙ্গলবার ট্রাম্প এবং তার পররাষ্ট্র বিষয়ক নীতিনির্ধারকরা জুয়ান গুইদোর প্রতি সমর্থন জানিয়ে ভেনেজুয়েলার নাগরিকদের তার পাশে দাঁড়ানো আহ্বান জানান। এক টুইট বার্তায় ট্রাম্প বলেন, ভেনেজুয়েলার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন তিনি। আর ভেনেজুয়েলার মানুষ এবং তাদের স্বাধীনতার পাশে দাঁড়াবে যুক্তরাষ্ট্র।

যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগ কিউবা এবং রাশিয়া মাদুরোর সরকারকে সমর্থন জানিয়ে আসছে। তাদের সমর্থন প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন। যুক্তরাষ্ট্রের দাবি, কিউবার প্রায় ২০ হাজার সেনা সদস্য মাদুরো সরকারের নিরাপত্তায় সহায়তা দিচ্ছে। তবে কিউবা এই অভিযোগ করে বলেছে এই সংখ্যার বেশিরভাগ মানুষই চিকিৎসাকর্মী।

এক টুইট বার্তায় কিউবার প্রেসিডেন্ট মিগুয়েল ডায়াজ ক্যানেল বলেন, কিউবার বিরুদ্ধে ট্রাম্পের সর্বাত্মত নিষেধাজ্ঞার হুমকি আমরা জোরালোভাবে প্রত্যাখান করচি। ভেনেজুয়েলায় কিউবার কোনও সেনাসদস্য কর্মকান্ড চালাচ্ছে না...এরইমধ্যে যথেষ্ট মিথ্যা বলে ফেলেছ।

প্রসঙ্গত, অতীতেও ভেনেজুয়েলায় অভ্যুত্থান প্রচেষ্টায় সমর্থন দিয়ে ব্যর্থ হওয়ার নজির রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের। ২০০২ সালে প্রেসিডেন্ট হুগো চ্যাভেজ এর বিরুদ্ধে অভ্যুত্থান প্রচেষ্টা চালায় মার্কিন কর্মকর্তাদের সঙ্গে একাধিকবার বৈঠক করা এক ব্যবসায়ী। তাৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশের প্রশাসন নতুন সরকারকে স্বীকৃতিও দিয়ে ফেলে। তবে অভ্যুত্থান প্রচেষ্টা নস্যাৎ হয়ে গেলে ওই স্বীকৃতি প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়।

/জেজে/

লাইভ

টপ