ভেনেজুয়েলায় সামরিক হস্তক্ষেপের ইঙ্গিত যুক্তরাষ্ট্রের

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:৪০, মে ০১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৪৫, মে ০১, ২০১৯

ভেনেজুয়েলায় চলমান অস্থিরতায় সামরিক হস্তক্ষেপের ইঙ্গিত দিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। ভেনেজুয়েলা পরিস্থিতি নিয়ে বুধবার রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গেও আলোচনা করেছেন তিনি।

নির্বাচনি কারচুপির অভিযোগ আর অর্থনৈতিক সংকটের বিরুদ্ধে এ বছরের শুরুতে ভেনেজুয়েলায় বিক্ষোভ শুরু হয়। বিক্ষোভের সুযোগে ২৩ জানুয়ারি নিজেকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন বিরোধীদলীয় নেতা হুয়ান গুইদো। প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর সরকারকে অবৈধ দাবি করে নিজেকে বৈধ অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন তিনি। মঙ্গলবার এক ভিডিও বার্তায় আকস্মিক অভ্যুত্থানের ঘোষণা দেন গুইদো। ভিডিওতে তার সঙ্গে বেশ কয়েকজন সামরিক সদস্যকেও দেখা যায়। এই অভ্যুত্থানে সমর্থন ঘোষণা করে যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার ওই অভ্যুত্থান প্রচেষ্টা নস্যাতের দাবি করেন প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো। তিনি বলেন, ভেনেজুয়েলা কখনোই সাম্রাজ্যবাদী শক্তির কাছে নত হবে না।

এমন পরিস্থিতিতে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ফক্স বিজনেস নেটওয়ার্ককে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেন, প্রেসিডেন্ট এই বিষয়ে অত্যন্ত স্বচ্ছ এবং অনন্য রকম অটল। সামরিক পদক্ষেপের সম্ভাবনা রয়েছে। যদি তার দরকার হয় তাহলে যুক্তরাষ্ট্র তা করবে।
এর আগে এক টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন জানান, ভেনেজুয়েলা পরিস্থিতি নিয়ে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে আলাপ করেছেন মাইক পম্পেও। মাদুরোর পরিকল্পনায় রাশিয়ার সম্পৃক্ততা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র কতটুকু জানে তা পরিষ্কার না করলেও বোল্টন বলেন ভেনেজুয়েলায় মস্কোর হস্তক্ষেপকে স্বাগত জানাবে না যুক্তরাষ্ট্র।

 

/জেজে/

লাইভ

টপ