ইরানের বিরুদ্ধে মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধ শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৬:১৮, মে ১২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:২০, মে ১২, ২০১৯

ইরানের এলিট ফোর্স ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী (আইআরজিসি) প্রধান বলেছেন, তার দেশের বিরুদ্ধে মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধ শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র। রবিবার এক পার্লামেন্টারি সেশনে দেওয়া বক্তব্যে তিনি এমন মন্তব্য করেন। ইরানি পার্লামেন্টের একজন মুখপাত্রের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।

সংবাদমাধ্যম আইসিএএনএ-র কাছে পার্লামেন্টে দেওয়া আইআরজিসি প্রধানের বক্তব্যের সারমর্ম তুলে ধরেন ইরানি পার্লামেন্টের মুখপাত্র বেহরুজ নেমাতি। তিনি বলেন, আইআরজিসি কমান্ডার মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি এই অঞ্চলের পরিস্থিতি তুলে ধরেছেন। তিনি একটি বিশ্লেষণ দিয়েছেন। এতে বলা হয়েছে, আমেরিকানরা একটি মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধ শুরু করেছে।

গত এপ্রিলে ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর প্রধান হিসেবে নিয়োগ পান মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি। এই ফোর্স ইরানের অত্যন্ত প্রভাবশালী একটি সশস্ত্র বাহিনী, দেশের সর্বোচ্চ নেতার সঙ্গে যাদের সরাসরি সম্পর্ক আছে।

এই বাহিনীর প্রধান দায়িত্ব হচ্ছে ইরানের সাংস্কৃতিক বিপ্লবের ঐতিহ্যকে সমুন্নত রাখা এবং সে দেশের ইসলামিক 'সিস্টেম' বা সমাজব্যবস্থাকে রক্ষা করা। ১৯৭৯ সালে ইরানে ইসলামিক বিপ্লবের অব্যবহিত পরেই এই আইআরজিসি বাহিনী গড়ে তোলা হয়েছিল। তার পর থেকে এই বাহিনী ক্রমশ ইরানের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামরিক পরিমন্ডলে একটি বিরাট শক্তি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে। তাদের নিজস্ব পদাতিক সেনা, নৌবাহিনী ও বিমানবাহিনী পর্যন্ত রয়েছে। এই বিপ্লবী গার্ড বাহিনী হাজার হাজার স্বেচ্ছাসেবী সদস্য নিয়ে গঠিত একটি মিলিশিয়া বাহিনীও নিয়ন্ত্রণ করে, যাদের নাম দেওয়া হয়েছে বাসিজ রেজিস্ট্যান্স ফোর্স। সূত্র: রয়টার্স, বিবিসি।

/এমপি/

লাইভ

টপ