ইরানকে মোকাবিলায় সেনা পাঠানোর খবরকে ‘ফেইক নিউজ’ আখ্যা দিলেন ট্রাম্প

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৪:৪১, মে ১৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৪:৪৭, মে ১৫, ২০১৯

মধ্যপ্রাচ্যে এক লাখ ২০ হাজার সেনা পাঠানোর পরিকল্পনা নিয়ে মার্কিন কর্মকর্তাদের বৈঠকের খবরকে ‘ফেইক নিউজ’ আখ্যা দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সোমবার মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউ ইয়র্ক টাইমসের খবরে বলা হয়, মার্কিন বাহিনীর ওপর ইরানের হুমকি মোকাবিলা ও তেহরানের পারমাণবিক অস্ত্র মোতায়েন কার্যক্রমে গতি আনা ঠেকাতে মধ্যপ্রাচ্যে সেনা পাঠানোর পরিকল্পনা পর্যালোচনা করেছেন মার্কিন কর্মকর্তারা। তবে মঙ্গলবার ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, এই খবরকে অস্বীকার করেছেন ট্রাম্প।মঙ্গলবার হোয়াইট হাইসে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন ট্রাম্প 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার আগে আগে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের প্রতিবেদক জিম অ্যাকোস্টাকে ডোনাল্ড  ট্রাম্প বলে বসেন, ‘আপনি ফেইক নিউজ!’ এরপর থেকেই ‘ফেইক নিউজ’ প্রত্যয়টি জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। শুরু হয় তার বিপুল ব্যবহার। তবে ‘ফেইক নিউজ’ শব্দটি ব্যবহার না করতে বিশ্বের গণমাধ্যমকর্মীদের আহ্বান জানিয়ে আসছেন জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও সংবাদমাধ্যম ব্যবস্থাপকেরা। গত বছর ‍বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস উপলক্ষে ঘানার রাজধানী আক্রায় এক আলোচনায় জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও সংবাদমাধ্যম ব্যবস্থাপক ড. আলহাজি সাদিক আবুবাবকার  সংবাদশাস্ত্রের ধ্রুপদী ধারণাকে আশ্রয় করে যুক্তি দেন, কোনও তথ্য ভুয়া হলে তাকে আর সংবাদ নামে ডাকার সুযোগ থাকে না। তাই ফেইক নিউজ বলে কিছু থাকতে পারে না। যাকে ফেক নিউজ নামে ডাকা হচ্ছে, তাকে বিপজ্জনক আখ্যা দিয়ে এর বিরুদ্ধে সম্মিলিত প্রতিরোধের আহ্বান জানান তিনি।

মঙ্গলবার নিউ ইয়র্ক টাইমসের সেনা পাঠানো খবরকে ফেইক নিউজ আখ্যা দেন ট্রাম্প। সোমবার সংবাদমাধ্যমটির খবরে বলা হয় গত সপ্তাহে শীর্ষ জাতীয় নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের এক বৈঠকে ইরানের হুমকি মোকাবিলায় সেনা পাঠানোর পরিকল্পনা পর্যালোচনা করা হয়েছে। এক লাখ ২০ হাজার সেনা পাঠানোর পরিকল্পনা পর্যালোচনার খবর দিয়েছে সংবাদমাধ্যমটি। আরেক মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের বরাতে ওই বৈঠকে মধ্যপ্রাচ্যে অতিরিক্ত সেনা পাঠানোর পরিকল্পনার খবর নিশ্চিত করে। তবে সুনির্দিষ্ট  সেনা সংখ্যা সিএনএনকে নিশ্চিত করেননি ওই কর্মকর্তা।

মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের উদ্দেশে ট্রাম্প বলেন, ‘আমার মনে হয় এটা ফেইক নিউজ, ঠিক আছে? আমার এখন তাই করতে হবে? নিশ্চয় না। আমরা এখনও এটা নিয়ে পরিকল্পনা করিনি। আশা করছি আমাদের এই পরিকল্পনা করতে হবে না। আর যদি আমরা তা করি তাহলে তার চেয়েও বহু বেশি সেনা পাঠাবো আমরা ’।

সোমবার প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের উদ্ধৃত করে নিউ ইয়র্ক টাইমস এর খবরে বলা হয়,ট্রাম্পকে সেনা সদস্যের সংখ্যাসহ মধ্যপ্রাচ্যে সামরিক শক্তি বৃদ্ধির পরিকল্পনার কথা জানানো হয়েছে কি না তা জানা যায়নি। নিউ ইয়র্ক টাইমস বলেছে,মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টনের নির্দেশে ভারপ্রাপ্ত প্রতিরক্ষামন্ত্রী প্যাট্রিক শানাহান-এর উপস্থাপিত পরিকল্পনায় যে পরিমাণ সেনা পাঠানোর কথা বলা হয়েছে তাতে বৈঠকে উপস্থিত অনেকেই চমকে যান। বৈঠকে বলা হয় ২০০৩ সালে ইরাক আগ্রাসনের সময় প্রায় একই পরিমাণ সেনা পাঠানো হয়েছিল।

/জেজে/

লাইভ

টপ