আইটি হুমকি মোকাবিলায় জরুরি অবস্থা জারি করলেন ট্রাম্প

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৩:২৪, মে ১৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:২৯, মে ১৬, ২০১৯

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বিদেশি প্রতিপক্ষের হাত থেকে দেশটির কম্পিউটার নেটওয়ার্ক সুরক্ষিত করতে জরুরি অবস্থা জারি করেছেন। বুধবার তিনি এই বিষয়ে একটি নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেছেন। এই আদেশে বলা হয়েছে, জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি হতে পারে এমন কোনও বিদেশি টেলিকম কোম্পানি ব্যবহার করতে পারবে না মার্কিন প্রতিষ্ঠানগুলো।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র খবরে বলা হয়েছে, ট্রাম্প নির্বাহী আদেশে কোনও বিদেশি কোম্পানির নাম উল্লেখ করেননি। তবে বিশ্লেষকরা ইঙ্গিত দিচ্ছেন, ট্রাম্পের এই নির্বাহী আদেশ মূলত চীনা টেলিকমিউনিকেশন জায়ান্ট হুয়াওয়েকে নিয়েই।

যুক্তরাষ্ট্রসহ বেশ কয়েকটি দেশ হুয়াওয়ের বিরুদ্ধে চীনের হয়ে নজরদারি চালানোর অভিযোগ তুলেছে। চীনা কোম্পানিটি এসব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে।

চীনের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের পাল্টাপাল্টি শুল্কারোপের ঘটনার মধ্যেই ট্রাম্প আইটি হুমকি মোকাবিলায় এই জরুরি অবস্থা জারি করলেন। এর আগে ট্রাম্প দ্বিতীয় মেয়াদে চুক্তি হলে সেটি চীনের জন্য এখনকার চেয়েও বেশি খারাপ হবে বলে সতর্ক করেছিলেন। কঠিন শুল্ক এড়াতে যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে পণ্য উৎপাদনেরও পরামর্শ দেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে বহুল প্রতীক্ষিত ‍দুই দিনব্যাপী বাণিজ্য আলোচনা দৃশ্যত উল্লেখযোগ্য কোনও অর্জন ছাড়াই শুক্রবার শেষ হয়েছে। বাণিজ্য আলোচনা চলাকালেই চীন থেকে আমদানিকৃত ২০ হাজার কোটি ডলারের পণ্যের ওপর ২৫ শতাংশ শুল্ক আরোপের ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র। বর্তমানে এসব চীনা পণ্যের জন্য ১০ শতাংশ হারে শুল্ক দিতে হয়। কিন্তু নতুন ঘোষণার কারণে এখন থেকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে ২৫ শতাংশ হারে বাড়তি শুল্ক পরিশোধ করতে হবে। এ ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়ে বেইজিং বলেছে, তারাও পাল্টা ব্যবস্থা নেবে। পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে চীনও মার্কিন পণ্যের ওপর শুল্কারোপ করার ঘোষণা দিয়েছে।

/এএ/

লাইভ

টপ