বোরকাপরা ভোটারদের তল্লাশির দাবি বিজেপি’র

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২১:১২, মে ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:০০, মে ১৮, ২০১৯

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের শেষ দফায় নির্বাচন কমিশনের কাছে নতুন দাবি তুললো পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি। দলটির দাবি, নির্বাচনে বুথের নিরাপত্তায় নিরাপত্তা বাহিনীর নারী সদস্যদের দিয়ে বোরকাপরা ভোটারদের তল্লাশি করতে হবে। শুক্রবার এ নিয়ে কমিশনের দ্বারস্থ হয় বিজেপি। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি নিউজ।

রবিবার শেষ দফায় পশ্চিমবঙ্গের ৯ লোকসভা আসনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। ওইসব কেন্দ্রের অধিকাংশই কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকার বাসিন্দা। বিজেপির দাবি, বোরকাপরা ভোটারদের পরীক্ষা করতে মোতায়েন করতে হবে কেন্দ্রীয় বাহিনীর নারী কর্মীদের। বিশেষ করে মুসলিম অধ্যুষিত কেন্দ্রগুলোতে।

বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘এ দফায় বেশকিছু মুসলিম অধ্যুষিত বুথ রয়েছে। ওইসব বুথ থেকে প্রায়ই অভিযোগ আসে, পুরুষ ভোটাররা বোরকা পরে ভুয়া ভোট দিয়ে যায়। রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনি কর্মকর্তাকে বিষয়টি জানিয়েছি। আমরা নারী বাহিনী চেয়েছি। এতে ভোটারদের ঠিকঠাক তল্লাশি করা যাবে।’

পশ্চিমবঙ্গের একজন বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার বলেন, আমরা চাই মানুষ নির্ভয়ে ভোট দিক। আমরা চাই না তাদের ওপর কেউ প্রভাব খাটাক। দলের পক্ষ থেকে প্রতিটি বুথে সিসিটিভি ও কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েনের দাবি জানানো হয়েছে।

এদিকে লোকসভা নির্বাচনে শেষ দফার ভোটগ্রহণকে সামনে রেখে ধ্যানে বসেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ১৯ মে রবিবার এ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যেই শেষ হয়েছে নির্বাচনকেন্দ্রিক প্রচার-প্রচারণা। এরইমধ্যে শনিবার তীর্থস্থান কেদারনাথে গিয়ে পূজা দেন মোদি। এদিন সকাল সাড়ে ৯টায় তার কপ্টার কেদারনাথ মন্দির এলাকায় অবতরণ করে। ২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসার পর এ নিয়ে চারবার কেদারনাথ গেলেন মোদি। শনিবার টুইটারে দেওয়া পোস্টে কেদারনাথকে সুমহান পর্বতমালা হিসেবে উল্লেখ করেন মোদি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এএনআই জানিয়েছে, রবিবার সকাল পর্যন্ত তিনি ধ্যানমগ্ন অবস্থায় থাকবেন মোদি। ধ্যানে যাওয়ার পথে তিনি কেদারনাথের পরিকাঠামো উন্নয়নের বিষয়টি খতিয়ে দেখেন। এরপর পাহাড়ি রাস্তা বেয়ে উপরে উঠতে শুরু করেন।

প্রায় দুই কিলোমিটার ট্র্যাক করে ওই গুহায় পৌঁছান মোদি। পাহাড়ি পথে তাকে ছাতা ও লাঠি নিয়ে উঠতে দেখা যায়। সংবাদমাধ্যমের অনুরোধে তিনি ধ্যানে বসার ছবি তুলতে দেন। তারপর ওই গুহায় আর কাউকে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়নি। সেখানে একান্তে ধ্যান শুরু করেছেন মোদি। ধ্যান চলবে রবিবার সকাল পর্যন্ত। সূত্র: জি নিউজ।

/এমপি/

লাইভ

টপ