সৃষ্টিকর্তার কাছে কী চাইলেন মোদি?

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৩:৫৫, মে ১৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৫২, মে ১৯, ২০১৯

কেদারনাথ গুহায় প্রার্থনা করার সময় সৃষ্টিকর্তার কাছ থেকে নিজের জন্য কিছু চাননি বলে দাবি করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এমনকি নির্বাচনে নিজ দলের বিজয়ের আকুতিও জানাননি। প্রায় ১৭ ঘণ্টার ধ্যান শেষে রবিবার (১৯ মে) কেদারনাথ গুহা থেকে বের হয়ে আসার পর তিনি সাংবাদিকদের বলেছেন, কেবল ভারত নয়, গোটা মানবজাতির সুখ-সমৃদ্ধি ও কল্যাণের জন্য প্রার্থনা করেছেন।শেষ ধাপের নির্বাচনের আগের দিন ১৮ মে শনিবার উত্তরাখণ্ডের কেদারনাথ মন্দির পরিদর্শনে যান মোদি। এদিন হিমালয়ের কেদারনাথ মন্দিরের কাছের একটি গুহায় রাতভর ধ্যান করেন তিনি।

রবিবার গুহা থেকে বের হয়ে আসার পর সাংবাদিকদের মোদি জানান, প্রার্থনা করার সময় তিনি ঈশ্বরের কাছে কিছু চাননি, এটি তার স্বভাবজাত নয়। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ঈশ্বর আমাদের প্রদান করার সক্ষমতা দিয়েছেন, দাবি করার নয়।’ মোদি আরও বলেন, শুধু ভারতই ঈশ্বরের আশীর্বাদপুষ্ট না হোক, বরং গোটা মানবজাতির ওপর সুখ, সমৃদ্ধি ও কল্যাণ বর্ষিত হোক। ‘বিভিন্ন উৎসবে এ মন্দির পরিদর্শন করতে পেরে আমি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করি।’

সাংবাদিকরা তার কাছে জানতে চান কেদারনাথ মন্দিরে তিনি কী করলেন? উত্তরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি নিজের সঙ্গে সময় কাটানোর সুযোগ পেয়েছিলাম। এতদিন কী কী করলাম তা ফিরে দেখার চেষ্টা করেছি।' নিজের দলেরও জয় চাননি কি? এই প্রশ্নের জবাবে এ বিজেপি নেতা বলেন, 'না। কিছুই চাইনি। আমি বিশ্বাস করি, ঈশ্বর আমাদের সকলকে যোগ্য করে এই পৃথিবীতে পাঠিয়েছেন। আমরা আমাদের যোগ্যতা দিয়েই পৃথিবীর কাজে যোগদান করতে পারি। তবে হ্যাঁ, আমি সব সময় প্রার্থনা করি যাতে আমাদের দেশের প্রতিটি মানুষকে ঈশ্বর আশীর্বাদ করেন।'

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার আগে দেখা যায়, ভিড়ের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলছেন, ‘হার হার মহাদেব।' সমর্থকরাও তার সুরে সুর মিলিয়ে বলতে থাকে হার হার মহাদেব।

২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসার পর শনিবার সকালে চতুর্থবারের মতো কেদারনাথ পরিদর্শনে যান মোদি। এদিন সকাল সাড়ে ৯টায় তাকে বহনকারী হেলিকপ্টার  মন্দির এলাকায় অবতরণ করে। শনিবার টুইটারে দেওয়া পোস্টে কেদারনাথকে সুমহান পর্বতমালা হিসেবে উল্লেখ করেন তিনি।

/এফইউ/বিএ/এমওএফ/

লাইভ

টপ