বুথফেরত জরিপে আতঙ্কিত দেওবন্দ, বিশেষ প্রার্থনার আহ্বান

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৭:২০, মে ২১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৫৭, মে ২১, ২০১৯

বুথফেরত জরিপে হিন্দু জাতীয়তাবাদী দল বিজেপির নিরঙ্কুশ জয়ের আভাসে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে ভারতের সংখ্যালঘু মুসলমানদের মধ্যে। এমন বাস্তবতায় ২৩ মে নিজেদের অনুকূলে ফল পেতে বিশেষ প্রার্থনার আহ্বান জানিয়েছেন দারুল উলুম দেওবন্দ মাদ্রাসার সিনিয়র আলেম মুফতি মেহমুদ হাসান বুলান্দশাহরি। মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের সুন্নি সম্প্রদায়ের কওমি ধারায় উপমহাদেশের প্রখ্যাত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির আলেমের এই পরামর্শ মেনে চলার কথা জানিয়েছেন দেওবন্দ শহরের অন্য আলেমরাও। ভারতের সংবাদমাধ্যম দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া এই খবর জানিয়েছে।

২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক জোটকে হারিয়ে ভারতে ক্ষমতাসীন হয় হিন্দু জাতীয়তাবাদী দল বিজেপি। তাদের পাঁচ বছরের শাসনামলে অন্যান্য প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর পাশাপাশি নিপীড়নের মুখে পড়ে সংখ্যালঘু মুসলিম সম্প্রদায়ও। গো-রক্ষার নামে মুসলিমদের ওপর বেশকিছু নিপীড়ন ও হামলার পাশাপাশি হত্যাকাণ্ডও সংঘটিত হয়। 

১৯ মে সপ্তম ও শেষ ধাপের নির্বাচন শেষে প্রকাশিত বুথফেরত জরিপগুলো গড় করে দেখা গেছে, ক্ষমতাসীন বিজেপি তিনশতাধিক আসন ও প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেস ১২২টির মতো আসন পেতে পারে। বিরোধী দলগুলো অবশ্য জরিপের ফলকে আমলে নিচ্ছে না। তারা দাবি করছে, এটি মোদি-সমর্থিত স্টাবলিশমেন্টের প্রচারণা, ভোটের প্রকৃত ফল ভিন্ন হবে। তা সত্ত্বেও বুথফেরত জরিপের ফলে হতাশ হয়ে পড়ে দারুল উলুম দেওবন্দ মাদ্রাসা।

দেওবন্দের আলেম মুফতি মেহমুদ বলেন, ফলাফলের যে পরিস্থিতি দেখা যাচ্ছে তাতে দেশের শান্তি, সমৃদ্ধি এবং মুসলমান, মসজিদ ও শিক্ষকদের সুরক্ষায় জোরালো প্রার্থনা করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তিনি বলেন, ‘কেউ জানে না কার প্রার্থনা কবুল হবে এবং দেশ সামনে এগিয়ে যাবে। নির্বাচনের ফল ঘোষণার আগ পর্যন্ত আমি সব মসজিদে নিয়মিত নামাজের পর ২৩ মে অনুকূল ফল পেতে বিশেষ দোয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। তিন দিন আগে থেকে এই দোয়া শুরু করতে হবে।’ মুসল্লিদের পাপ মোচনের জন্যও দোয়া করার আহ্বান জানান মুফতি মেহমুদ। তিনি বলেন, ‘আমাদের চারপাশে নানা প্রলোভন রয়েছে। আমাদের অবশ্যই পাপ থেকে মুক্তি চাইতে হবে।’

উত্তর প্রদেশের দেওবন্দ শহরে অবস্থিত কওমি ধারার বিশ্ববিদ্যালয় খ্যাত দারুল উলুম মাদ্রাসা। ওই শহরের আলেমরাও মুফতি মেহমুদের আহ্বানকে স্বাগত জানিয়েছেন। তার আহ্বানে সাড়া দেওয়ারও সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। দেওবন্দ শহরের একজন আলেম মাওলানা ইসহাক গোরা বলেন, আমরা তার পরামর্শকে স্বাগত জানাই আর সব মুসলমান অবশ্যই ধর্মীয়ভাবে তার পরামর্শ মেনে চলবে। বুথফেরত জরিপের ফল নিয়ে আমরা খুবই উদ্বিগ্ন। তিনি বলেন, আমাদের দেশে এমন একটি সরকার দরকার যারা সবাইকে সাথে নেবে আর ভ্রাতৃত্ব, সৌহার্দ্য ও শান্তির জন্য কাজ করবে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমাদের কয়েকটি রাজনেতিক দল ধর্মের ভিত্তিতে রাজনীতি করে, যা ঠিক নয়। তাদের অবশ্যই সরে যাওয়া উচিত। সুতরাং মুফতির দেওয়া দোয়ার পরামর্শ সবাই খুব গুরুত্বের সাথে নিয়েছে।

/জেজে/বিএ/এমএমজে/

লাইভ

টপ