করবিনের সঙ্গে বৈঠকে অস্বীকৃতি ট্রাম্পের

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১২:৩২, জুন ০৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১২:৩৬, জুন ০৫, ২০১৯

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘোষণা করেছেন, যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্যের মধ্যকার যেকোনও বাণিজ্য চুক্তির ক্ষেত্রে ব্রিটিশ ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসকে (এনএইচএস) আলোচনার টেবিলে দেখতে চান তিনি। তবে হেলথ সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ মার্কিন করপোরেশনের হাতে তুলে দেওয়ার বিরোধিতাকারী লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিনের সঙ্গে দেখা করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন ট্রাম্প। মঙ্গলবার (৪ জুন) যুক্তরাজ্য সফরের দ্বিতীয় দিনে এসব ঘোষণা দেন তিনি। ট্রাম্পের এ বক্তব্য নিয়ে ক্ষোভ জানিয়েছেন করবিন।

ট্রাম্প-করবিন
রাষ্ট্রীয় সফরের অংশ হিসেবে সোমবার (৩ জুন) লন্ডন পৌঁছান ট্রাম্প। এদিন ওয়েস্ট মিনস্টার অ্যাবে পরিদর্শন করেন তিনি। ক্লিয়ারেন্স হাউসে (রয়েল রেসিডেন্স) প্রিন্স চার্লস ও ডাচেস অব কর্নওয়ালের সঙ্গেও চা চক্রে অংশ নেন। আর সোমবার সন্ধ্যায় ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে অংশ নেন নৈশ ভোজে। আর মঙ্গলবার সকালে বৈঠক করেন বিদায়ী ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’র সঙ্গে।

মঙ্গলবার থেরেসা মে’র সঙ্গে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প বলেন, যেকোনও চুক্তির অংশ হিসেবে যুক্তরাজ্যের অর্থনীতির প্রতিটি খাতে মার্কিন কোম্পানিগুলোর প্রবেশাধিকার থাকতে হবে। এতে যুক্তরাজ্যের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্যের পরিমাণ তিন গুণ হবে বলে দাবি করেন ট্রাম্প। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘বাণিজ্য চুক্তির ক্ষেত্রে আপনারা আলোচনার টেবিলে সব পাবেন। এনএইচএস হোক বা অন্য যা কিছুই হোক। তার চেয়েও বেশি কিছু থাকতে পারে।’

ট্রাম্পের বক্তব্য নিয়ে লেবার পার্টির নেতাদের পাশাপাশি টোরি নেতারাও ক্ষোভ জানিয়েছেন। সংবাদ সম্মেলনস্থলের অদূরে হোয়াইট হলে বিক্ষোভ করেছেন করবিন। তিনি বলেন, ব্রেক্সিটের পর ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসকে বেসরকারি আমেরিকান কোম্পানির হাতে চলে যেতে দেওয়া হবে না। ‘আমরা বসে থাকব না; মানবাধিকার হিসেবে যে স্বাস্থ্য সুরক্ষা ব্যবস্থা থেকে সবাই বিনামূল্যে চিকিৎসা পায়, সেটির নীতিমালার সুরক্ষায় শরীরে শেষ নিঃশ্বাস থাকা পর্যন্ত আমরা লড়াই করব।’

/এফইউ/

লাইভ

টপ