ফাইভ জি প্রযুক্তির উন্নয়নে রুশ কোম্পানির সঙ্গে হুয়াওয়ের চুক্তি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০০:৪০, জুন ০৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:৪৭, জুন ০৭, ২০১৯

রাশিয়ায় ফাইভ জি প্রযুক্তির উন্নয়নে রুশ টেলিকম কোম্পানি এমটিএসের সঙ্গে চুক্তি করেছে চীনা টেলিকম জায়ান্ট হুয়াওয়ে। চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের তিনদিনের রাশিয়া সফরের শুরুতেই এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। বিবিসি জানিয়েছে, চুক্তিতে আগামী বছরের মধ্যে রাশিয়ায় নতুন প্রজন্মের ৫জি নেটওয়ার্কের উন্নয়নে কোম্পানি দুটির সমঝোতা হয়েছে।

বাণিজ্য নিয়ে চলতি বছরের শুরু থেকে বেইজিং ও ওয়াশিংটনের মধ্যে যে টানাপোড়েন চলছে টেলিকম কোম্পানি হুয়াওয়ে তার অন্যতম কেন্দ্রীয় চরিত্রেই অবস্থান করছে। জাতীয় নিরাপত্তার দোহাই দিয়ে হুয়াওয়ের ওপর যুক্তরাষ্ট্রসহ বেশ কয়েকটি পশ্চিমা দেশের নিষেধাজ্ঞা  যখন আলোচনার কেন্দ্রে, ঠিক সেই সময় এমটিএসের সঙ্গে তাদের এ চুক্তি হল। সাম্প্রতিক মাসগুলোতে ব্যাপক আন্তর্জাতিক চাপের মুখে থাকা হুয়াওয়ের জন্য এই চুক্তি খানিকটা হলেও স্বস্তি বয়ে আনবে বলে ধারণা পর্যবেক্ষকদের।

বিবৃতিতে এমটিএস জানিয়েছে. ‘এই চুক্তি ফাইভ জি প্রযুক্তির উন্নয়ন এবং ২০১৯ ও ২০২০ সালের মধ্যে পঞ্চম প্রজন্মের নেটওয়ার্ক চালুর পাইলট প্রকল্পগুলো পর্যবেক্ষণ করবে’।

চীনের কমিউনিস্ট সরকার হুয়াওয়ের পণ্যের মাধ্যমে ব্যাপক নজরদারি চালাচ্ছে দাবি করে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে যুক্তরাষ্ট্র ওই চীনা টেলিকম জায়ান্টসহ এর ফাইভ জি প্রযুক্তি ব্যবহার নিষিদ্ধ করে। প্রতিষ্ঠানটির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিতে মিত্রদের উৎসাহিতও করছে তারা। যুক্তরাষ্ট্রের আহ্বানে সাড়া দিয়ে এরইমধ্যে অস্ট্রেলিয়া ও নিউ জিল্যান্ড হুয়াওয়ের ফাইভ জি মোবাইল নেটওয়ার্কের সরঞ্জাম সরবরাহে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

হুয়াওয়ে তাদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করে বলছে, তারা একটি স্বতন্ত্র ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান এবং তাদের সঙ্গে চীনের সরকারের কোনো যোগসাজশ নেই।

হুয়াওয়ের অগ্রযাত্রা থামাতে গত মাসে ওয়াশিংটন কোম্পানিটিকে ‘কালো তালিকায়’ও অন্তর্ভুক্ত করেছে। এর ফলে চীনা এই টেলিকম জায়ান্টের সঙ্গে মার্কিন কোম্পানিগুলোর ব্যবসা-বাণিজ্যে নানান বিধিনিষেধ বসেছে। কেবল প্রযুক্তির লড়াইয়েই নয়, বিশ্বব্যাপী বেইজিংয়ের বাড়তে থাকা প্রভাব কমাতে নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের অংশ হিসেবেও হুয়াওয়েকে কালো তালিকাভুক্ত করা হতে পারে বলে ধারণা অনেকের।

 

/বিএ/

লাইভ

টপ