পোল্যান্ডে যাচ্ছে নতুন এক হাজার মার্কিন সেনা

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১০:০০, জুন ১৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৩১, জুন ১৩, ২০১৯

রুশ ‘আগ্রাসন’ মোকাবিলার কথা বলে পোল্যান্ডে নতুন করে আরও এক হাজার মার্কিন সেনা পাঠানোর ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বুধবার হোয়াইট হাউসে পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেই দুদার সঙ্গে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প নতুন করে সেনা মোতায়েনের এ ঘোষণা দেন। এর আগে ২০১৭ সালে পূর্ব ইউরোপের ওই দেশটিতে তিন হাজার মার্কিন সেনা মোতায়েন করা হয়েছিল।

পূর্ব ইউরোপের দেশ ইউক্রেনের অংশ ক্রিমিয়া উপদ্বীপকে ২০১৪ সালে রাশিয়া নিজেদের সঙ্গে যুক্ত করে নেয়ার পর থেকেই ওই অঞ্চলে মস্কোর সম্ভাব্য আগ্রাসনের আশঙ্কায় পূর্ব ইউরোপে সামরিক শক্তি বাড়ায় ন্যাটো। সেই সময় পোল্যান্ডেও ন্যাটোর সেনা মোতায়েন করা হয়। ট্রাম্প জানিয়েছেন, জার্মানিতে থাকা যুক্তরাষ্ট্রের ‘৫২ হাজার স্ট্রং কন্টিনজেন্ট’ থেকে ড্রোন ও অন্যান্য সামরিক সরঞ্জামসহ এক হাজার সেনা পোল্যান্ডে নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, রাশিয়ার আগ্রাসন ঠেকাতে ন্যাটোকে সহায়তার অংশ হিসেবে সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার প্রতিশ্রুতি মোতাবেক সেখানে সেনা মোতায়েন করা হয়। কয়েক দশকের মধ্যে ইউরোপে এটি যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তম সামরিক শক্তি মোতায়েন।

যুক্তরাষ্ট্র সফরকালে পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট দুদা ট্রাম্পকে ২০০ কোটি ডলার ব্যয়ে তার দেশে সামরিক ঘাঁটি নির্মাণের প্রস্তাব দেন। তিনি বলেন, ওই ঘাঁটির নাম হতে পারে ‘ট্রাম্প দুর্গ’। তবে নতুন করে সেনা মোতায়েনের ঘোষণা দিলেও পোল্যান্ডে স্থায়ীভাবে মার্কিন ঘাঁটি বসানো হবে কিনা, সে ব্যাপারে স্পষ্ট কিছু বলেননি ট্রাম্প।

এক বছরেরও কম সময়ে এটা দুদার দ্বিতীয় যুক্তরাষ্ট্র সফর। ট্রাম্পকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, পোলিশ ব্যাপারে ট্রাম্প অত্যন্ত উদার এবং তার বোঝাপড়াও দারুণ। ওয়াশিংটনের পর টেক্সাস, নেভাদা ও ক্যালিফোর্নিয়া সফর করার কথা রয়েছে তার।

/এমএইচ/বিএ/এমওএফ/

লাইভ

টপ