এবার হোয়াইট হাউস থেকে বিদায় নিচ্ছেন সারাহ স্যান্ডার্স

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৩:২৬, জুন ১৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৩০, জুন ১৪, ২০১৯

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন থেকে একের পর কর্মকর্তার বিদায়ের ধারাবাহিকতায় এবার হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারির পদ থেকে অব্যাহতি নিচ্ছেন সারাহ স্যান্ডার্স। জুনের শেষ নাগাদ পদত্যাগের পর নিজের জন্মস্থান আরকানসাস অঙ্গরাজ্যে ফিরে যাবেন তিনি। বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) ট্রাম্প এ ঘোষণা দেন। তবে সারাহ’র পরবর্তী পরিকল্পনা সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি। ট্রাম্পের সঙ্গে কোনও বিরোধের জেরে তিনি পদ ছাড়ছেন কিনা তারও ইঙ্গিত মেলেনি। ট্রাম্প ও সারাহ দুইজনই একে অপরের প্রশংসা করেছেন।

ট্রাম্প ও সারাহ
২০১৭ সালের জানুয়ারিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। পরবর্তীতে তার প্রশাসন থেকে একের পর এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ও মন্ত্রিপরিষদ সদস্য বরখাস্ত হয়েছেন কিংবা পদত্যাগ করেছেন। এ বছর বরখাস্তকৃত বা পদত্যাগকারী কর্মকর্তাদের মধ্যে রয়েছেন হোমল্যান্ড সিকিউরিটি সেক্রেটারি কির্সটজেন নিয়েলসেন, হোয়াইট হাউসের যোগাযোগবিষয়ক পরিচালক বিল শাইন ও স্মল বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন প্রধান লিন্ডা ম্যাকমাহন। এবার হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি হিসেবে পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন সারাহ স্যান্ডার্স।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) শুরুতে টুইটারে সারাহ স্যান্ডার্সের পদত্যাগের ঘোষণা দেন ট্রাম্প। এরপর হোয়াইট হাউসের এক অনুষ্ঠানে তার প্রশংসা করেন। সারাহকে ‘চমৎকার ব্যক্তি’ আখ্যা দেন তিনি। পাল্টা বক্তব্যে ট্রাম্প ও অন্যদের কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন সারাহ। বলেছেন, ‘আমি প্রেসিডেন্টকে ভালোবাসি।’ ট্রাম্পের প্রতি বিশ্বস্ত থাকা এবং তার পক্ষে দৃঢ় অবস্থান নেওয়া অব্যাহত রাখবেন বলেও আশ্বাস দিয়েছেন ৩৬ বছর বয়সী এ নারী।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান বলছে, পারস্পরিক এ প্রশংসার মধ্য দিয়ে বোঝা যায় তাদের আলাদা হয়ে যাওয়াটা বিরোধ নয়, বন্ধুত্বপূর্ণ।

সাবেক আরকানসাস গভর্নর মাইক হুকাবির মেয়ে সারাহ স্যান্ডার্স। ২০১৭ সালের জুলাইয়ে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি শন স্পাইসারের স্থলাভিষিক্ত হন তিনি। হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি থাকাকালে সারাহ স্যান্ডার্সের যোগ্যতা নিয়ে অনেক প্রশ্ন উঠেছে। বিভিন্ন সময়ে ট্রাম্পের পক্ষে সাফাই গাইতে দেখা গেছে তাকে। ‘ঈশ্বর ট্রাম্পকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে চেয়েছেন'বলে মন্তব্য করেছিলেন তিনি। সারাহ সর্বশেষ সংবাদ সম্মেলন করেছেন ১১ মার্চ। তিন মাসেরও বেশি সময় ধরে তাকে সংবাদ সম্মেলন করতে দেখা যায়নি।

প্রেস সেক্রেটারি হিসেবে কাকে সারাহ স্যান্ডার্সের স্থলাভিষিক্ত করা হবে সে ব্যাপারে কিছু উল্লেখ করেননি ট্রাম্প।

/এফইউ/

লাইভ

টপ