ইরানকে রুখতে ‘আন্তর্জাতিক জোট’ গঠনের তোড়জোড় যুক্তরাষ্ট্রের

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৬:০০, জুন ২৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৪৫, জুন ২৫, ২০১৯

সোমবার ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনিসহ শীর্ষ সেনা কর্মকর্তাদের ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা জারির পাশাপাশি তাদের আলোচনায় বাধ্য করতে কূটনৈতিক তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। ইরান বলছে, নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকলে তারা আলোচনায় নারাজ। তবে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে ব্রিটেন, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতও শামিল হয়েছে ইরানকে আলোচনায় বসতে বাধ্য করতে। মধ্যপ্রাচ্য সফররত মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও ইরানবিরোধী ‘আন্তর্জাতিক জোট’ গঠনের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। তবে রাশিয়া ইরানবিরোধী পদক্ষেপ প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়েছে।

সৌদি বাদশাহ সালমানের সঙ্গে পম্পেও
ওয়াশিংটন ও তেহরানের মধ্যকার চলমান উত্তেজনার ধারাবাহিকতায় ইরানের ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ট্রাম্প প্রশাসন। সোমবার (২৪ জুন) থেকে নতুন করে মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়েছে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনির দফতর ও সে দেশের সেনাবাহিনী।

ইরান সরকারের দীর্ঘদিনের মিত্র দেশ রাশিয়া সোমবার ট্রাম্প আরোপিত নিষেধাজ্ঞাকে ‘অবৈধ’ আখ্যা দিয়েছেন। আর ইরানকে মিশ্র বার্তা দেওয়ার জন্য নিজ দেশেই সমালোচনার মুখে রয়েছেন ট্রাম্প। অবশ্য, মার্কিন প্রেসিডেন্ট দৃঢ়কণ্ঠে বলেছেন, অতীতে মধ্যপ্রাচ্যে যে মার্কিন নীতিমালা ছিল তা ভাঙতে পারার মতো সুস্পষ্ট কৌশল রয়েছে তার।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও সোমবার (২৪ জুন) সৌদি আরব সফরে গিয়ে সে দেশের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। ইসলামী প্রজাতন্ত্রের বিরুদ্ধে ‘আন্তর্জাতিক জোট’ গড়ে তুলতে এ সফর শুরু করেছেন তিনি। সোমবার সৌদি বাদশাহ সালমান ও যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে জেদ্দায় বৈঠক করেছেন পম্পেও। পরবর্তীতে একই রকমের বৈঠক করতে সংযুক্ত আরব আমিরাতে যাবেন তিনি।

ওমান সরকার দাবি করেছে, গত সপ্তাহে ড্রোন ভূপাতিতের ঘটনায় তারা ইরানের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে বার্তা পৌঁছাচ্ছে বলে যে খবর প্রকাশ হয়েছে তা ‘সত্য নয়’। আত্মনিয়ন্ত্রণ প্রদর্শন ও আলোচনার মাধ্যমে ঝুলন্ত ইস্যুগুলো সমাধান করার জন্য ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রকে টুইটারে আহ্বান জানিয়েছে ওমানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

ইরানে যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন ভূপাতিত করার পর ট্রাম্প পাল্টা হামলা থেকে সরে এলেও মার্কিন সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, তেহরানের ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা ও গোয়েন্দা নেটওয়ার্কে সাইবার হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। সোমবার (২৪ জুন) ইরানের টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ আজারি জাহরোমি বলেছেন, তার দেশের বিরুদ্ধে চালানো কোনও সাইবার হামলাই কখনও সফল হয়নি।

ইরানের সঙ্গেকার উত্তেজনা নিয়ে আলোচনা করতে যুক্তরাষ্ট্রের অনুরোধে নিউ ইয়র্কে বৈঠকে বসছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ। ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বলেছেন, জাপানে জি টোয়েন্টি সম্মেলন চলার ফাঁকে তিনি ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক করবেন। একটি সমন্বিত আঞ্চলিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্য নিয়ে একটি গঠনমূলক সমাধানে পৌঁছানোর আহ্বান জানাবেন।

/এফইউ/বিএ/এমওএফ/

লাইভ

টপ