ভারত-ইসরায়েল ৫০০ কোটি ডলারের ক্ষেপণাস্ত্র চুক্তি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৭:৫৫, জুলাই ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৫৮, জুলাই ১৭, ২০১৯

ভারতীয় নৌবাহিনী ও মুম্বাইয়ের এমডিএল শিপইয়ার্ডে ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থাপনার সম্পূরক সরঞ্জাম সরবরাহে ৫০০ কোটি ডলারের একটি ‘ফলোআপ চুক্তি’ হয়েছে। ইসরায়েলের রাষ্ট্র-মালিকানাধীন সামরিক ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান অ্যারোস্পেস ইন্ড্রাস্টিজ সূত্রে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এই তথ্য জানিয়েছে।

মুম্বাইয়ের মাজাগন ডক শিপবিল্ডার্স লিমিটেডের (এমডিএল) শিপইয়ার্ডটি ভারতীয় নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ ও সাবমেরিন নির্মাণে ব্যবহৃত হয়। বুধবার অ্যারোস্পেস-এর বরাতে রয়টার্স জানিয়েছে, এমডিএল-এর জন্য ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য মাঝারি পাল্লার নৌ-ক্ষেপণাস্ত্রের রক্ষণাবেক্ষণ থেকে শুরু করে অন্যান্য আনুষঙ্গিক ব্যবস্থাপনায় এ চুক্তি হয়েছে।

মধ্যপ্রাচ্য শান্তি প্রক্রিয়ায় ভারতের অবস্থান খুবই স্পষ্ট এবং ধারাবাহিক হলেও মোদির শাসনামলে এসে ২০১৫ সালে প্রথমবারের মতো গাজার সহিংসতা প্রশ্নে ইসরায়েলবিরোধী এক ভোটাভুটিতে অংশ নেওয়া থেকে বিরত ছিল ভারত। পাকিস্তানকে রুখতে এ বছর মে মাসে ইসরায়েলের কাছে থেকে ক্ষেপণাস্ত্র কেনার কথা জানায় ভারত। জুনে প্রথমবারের মতো এক ফিলিস্তিনি সংগঠনের পর্যবেক্ষক মর্যাদা কেড়ে নেওয়ার ইসরায়েলি দাবির পক্ষে ভোট দিয়েছে নরেন্দ্র মোদির দেশ। এবার ইসরায়েলের কাছ থেকে ভারতের ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থার সম্পূরক সরঞ্জাম কেনার কথা জানা গেল।

ইসরায়েল অ্যারোস্পেসের ব্যবস্থাপনা, ক্ষেপণাস্ত্র ও  মহাকাশ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক বোয়াজ লেভি বলেছেন, ‘ব্যবস্থাপনার আধুনিকায়ন ও সরবরাহের পর গ্রাহকের ব্যবহারিক প্রয়োজনের দেখভালের পর্যায়ে পৌঁছানোর ক্ষেত্রে এ চুক্তি একটি দুর্দান্ত ঘটনা’।

 

/বিএ/

লাইভ

টপ