রাশিয়ায় নির্বাচন নিয়ে বিক্ষোভে ধরপাকড়, আটক ছয় শতাধিক

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২৩:৫৯, জুলাই ২৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:১০, জুলাই ২৮, ২০১৯

রাশিয়ায় আসন্ন স্থানীয় সরকার নির্বাচন নিয়ে এক বিক্ষোভে ব্যাপক ধরপাকড় চালিয়েছে পুলিশ। শনিবার মস্কোর মেয়রের দফতরের কাছে ওই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় সেখান থেকে বিরোধীদলীয় প্রভাবশালী রাজনীতিকসহ অন্তত ৬০০ জনকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বেসরকারি পর্যবেক্ষক গোষ্ঠী ওভিডি-ইনফো। তবে পুলিশের পক্ষ থেকে ২৯৫ জনকে গ্রেফতারের কথা স্বীকার করা হয়েছে। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।
২০১৯ সালের ৮ সেপ্টেম্বর মস্কোর স্থানীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। ওই নির্বাচনে বিরোধীদলীয় সদস্যদের প্রার্থী হওয়ার সুযোগ দেওয়ার দাবিতে বিরোধীদলীয় নেতা অ্যালেক্সি নাভালনি-র ডাকে শনিবারের এ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। তবে আগে থেকেই এ বিক্ষোভকে অবৈধ ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। ‘অননুমোদিত বিক্ষোভ সমাবেশের’ ডাক দেওয়ার অপরাধে অ্যালেক্সি নাভালনিকে গত বুধবার এক মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। অভিযান চালানো হয় বিরোধীদলের সম্ভাব্য প্রার্থীদের বাড়িতে। এসব অভিযানে ধরপাকড়ের শিকার হন অনেক বিরোধী রাজনীতিক।

কর্তৃপক্ষের বিধিনিষেধ সত্ত্বেও শনিবারের কর্মসূচিতে অংশ নেন কয়েক হাজার বিক্ষোভকারী। এ সময় তারা রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের পদত্যাগের দাবিতে আওয়াজ তোলেন। এক পর্যায়ে আন্দোলনকারীদের ওপর লাঠিচার্জ করে পুলিশ। এ সময় ৬০০-এরও বেশি বিক্ষোভকারীকে আটক করা হয়। পুলিশি অ্যাকশনে ছত্রভঙ্গ হয়ে যায় আন্দোলনকারীরা।

মূলত ৮ সেপ্টেম্বরের নির্বাচনে কর্তৃপক্ষ ৩০ ব্যক্তিকে প্রার্থী হওয়ার অযোগ্য ঘোষণার প্রেক্ষিতে এ আন্দোলনের সূত্রপাত। সরকারের দাবি, ওই ব্যক্তিদের প্রার্থী হওয়ার মতো পর্যাপ্ত জনসমর্থন নেই এবং তারা প্রয়োজনীয় সংখ্যক বৈধ স্বাক্ষর সংগ্রহে ব্যর্থ হয়েছে। তবে বিরোধীদের অভিযোগ, রাজনৈতিক কারণে তাদের নির্বাচনে অংশ নিতে দেওয়া হচ্ছে না।

/এমপি/

লাইভ

টপ