ভারতে খালাস পেল গরু ব্যবসায়ী পিটিয়ে হত্যায় অভিযুক্ত সব আসামি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২৩:৪৬, আগস্ট ১৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৪৮, আগস্ট ১৪, ২০১৯

গরু পরিবহনের সময় ২০১৭ সালে একদল সংঘবদ্ধ লোকের হামলায় নিহত হন ভারতের গরু ব্যবসায়ী পিলু খান। ওই ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেলে ওঠে সমালোচনার ঝড়। ভিডিওতে শনাক্ত ছয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। বুধবার রাজস্থানের আদালতে ওই ছয় আসামিকে খালাস দিয়ে বলেছে ‘বেনিফিট অব ডাউট’ পেয়েছে এই অভিযুক্তরা। রায় ঘোষণায় আদালত বরেছে, ঘটনার সময় আসামিদের উপস্থিতি প্রমাণে এই ভিডিও যথেষ্ট নয়। ভারতের সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, আসামিদের নির্দোষ ঘোষণার পর আদালত কক্ষের বাইরে অবস্থানরত সমর্থকরা ‘ভারত মাতা কি জয়’ স্লোগানে ফেটে পড়ে।সংঘবদ্ধ হামলায় নিহত পিলু খানের পরিবারের আহাজারি

২০১৭ সালে ১ এপ্রিল জয়পুর-দিল্লি মহাসড়ক ধরে গরু নিয়ে যাওয়ার সময় ট্রাক থেকে টেনে নামানো হয় পিলু খানকে। সংঘবদ্ধ পিটুনিতে মারাত্মক আহত অবস্থায় তিন দিন পরে হাসপাতালে মৃত্যু হয় তার। পিলু খানকে পেটানোর দৃশ্য মোবাইল ফোনে ধারণ করা হলে তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়।

এই ঘটনায় দুটি মামলা দায়ের হয়। এর একটিতে পিলু খানের ওপর হামলাকারীদের আসামি করা হয় আর অপর মামলায় পিলু ও তার সন্তানদের বিরুদ্ধে অনুমতি ছাড়া গরু পরিবহনের অভিযোগ আনা হয়। তবে পিলু  ও সন্তানেরা এসব গরু জয়পুরের মেলায় নিয়ে এসেছিলেন আর পরে তা হরিয়ানায় ফিরিয়ে নিচ্ছিলেন।

পিলু খানের ওপর হামলায় মোট নয় জনকে আসামি করে অভিযোগপত্র দেয় রাজস্তান পুলিশ। তবে তিনজন প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়ায় বর্তমানে জামিনে রয়েছে তারা। বাকি ছয় আসামিকে বুধবার খালাসের রায় দেয় আদালত।

পিলু খান হত্যার ঘটনা ভারতে গরু রক্ষার নামে সংখ্যালঘু মুসলমানদের ওপর হামলার ঘটনার প্রতীক হয়ে ওঠে। রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলত বলেছেন আদালতের বুধবারের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করা হবে।

এনডিটি’র সংগৃহীত পরিসংখ্যান অনুযায়ী ২০১৫ সালের পর থেকে গরু রক্ষার নামে ভারত জুড়ে ১১০টি হামলার ঘটনা ঘটেছে। এসব হামলায় প্রাণ হারিয়েছে ৪৩ জন।

 

/জেজে/

লাইভ

টপ