অ্যামাজনের আগুন নিয়ে ক্ষোভের শিকার ব্রাজিলের পরিবেশমন্ত্রী

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৯:১০, আগস্ট ২২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৪৯, আগস্ট ২২, ২০১৯

অ্যামাজনের আগুন নিয়ে জলবায়ু পরিবর্তন জনিত এক সম্মেলনে প্রশ্নের মুখে পড়েছেন ব্রাজিলের পরিবেশমন্ত্রী রিকার্ডো স্যালেস। পৃথিবীর ফুসফুসখ্যাত ওই বনাঞ্চলে রেকর্ড পরিমাণ দাবানলের ঘটনায় তাকে প্রশ্নের মুখে ফেলেন সম্মেলনে অংশগ্রহণকারীরা। বুধবার ব্রাজিলের সালভাদর শহরে এই সম্মেলনের আয়োজন করে জাতিসংঘ। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, সম্মেলনে বক্তব্য রাখতে ব্রাজিলের মন্ত্রীর নাম ঘোষণার পরই বেশিরভাগ অংশগ্রহণকারী তার বিরুদ্ধে চিৎকার করে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।জাতিসংঘ আয়োজিত এক সম্মেলনে ক্ষোভের কবলে পড়েন ব্রাজিলের পরিবেশমন্ত্রী রিকর্ডো স্যালেস

সম্প্রতি ব্রাজিলের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট ফর স্পেস রিসার্স (আইএনপিই) বলছে, এ বছর এ পর্যন্ত ব্রাজিলে ৭২,৮৪৩টি অগ্নিকাণ্ড হয়েছে। এর মধ্যে অর্ধেকের বেশি আগুনের ঘটনা অ্যামাজন জঙ্গলের, যা আগের বছরের তুলনায় ৮০ শতাংশ বেশি। তাদের হিসাব মতে, দাবানলে প্রতি মিনিটে অ্যামাজনের প্রায় ১০,০০০ বর্গমিটার এলাকা পুড়ে যাচ্ছে, যা একটি ফুটবল মাঠের প্রায় দ্বিগুন আয়তনের সমান (একটি ফুটবল মাঠের আয়তন প্রায় ৫ হাজার ৩৫১ বর্গমিটার)। বিজ্ঞানীদের আশঙ্কা, এ অবস্থা চলতে থাকলে জলবায়ু পরিবর্তনবিরোধী লড়াইয়ে বড় ধরনের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হতে পারে।

এমন প্রেক্ষাপটে সালভাদর শহরে লাতিন আমেরিকান ও ক্যারিবিয়ান জলবায়ু সপ্তাহের আয়োজন করেছে জাতিসংঘ। এই অঞ্চলে জলবায়ু পরিবর্তন রোধে উৎসাহিত করাই এর লক্ষ্য। বিভিন্ন এনজিও, ব্যবসা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা অন্যান্যদের সঙ্গে এতে অংশ নিচ্ছেন।

বুধবার ওই সপ্তাহের উদ্বোধনী সম্মেলনে বক্তব্য রাখার জন্য ব্রাজিলের পরিবেশমন্ত্রী রিকার্ডো সেলেসের নাম ঘোষণা করার সঙ্গে সঙ্গে বিপুল সংখ্যক অংশগ্রহণকারী তার বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। বক্তব্য দেওয়ার জন্য পোডিয়ামের দিকে অগ্রসর হলে অনেকেই তার উদ্দেশে ‘অ্যামাজন অঞ্চল জ্বলছে’ বলে চিৎকার করে ওঠেন।

অ্যামাজন বনাঞ্চলে অগ্নিকাণ্ডের জন্য ব্রাজিলের সরকারকে দায়ী করে আসছেন পরিবেশবাদীরা। তারা বলছেন, দেশটির ডানপন্থী প্রেসিডেন্ট জইর বলসোনারো বনাঞ্চল পরিষ্কার করতে কৃষক ও কাঠ ব্যবসায়ীদের উৎসাহিত করছেন। আর সেকারণেই অ্যামাজনের রেইনফরেস্টের অরণ্যবিনাশ ত্বরান্বিত হচ্ছে।

শুক্রবার প্রেসিডেন্ট জইর বলসোনারো বলেছেন, আগুনের ঘটনা তদন্ত করা হচ্ছে তবে অগ্নিকাণ্ড রোধে সরকারি সম্পদের অপ্রতুলতা রয়েছে।

/জেজে/বিএ/

লাইভ

টপ