অ্যামাজনের অগ্নিকাণ্ড মোকাবিলায় চিলির সহায়তা নিচ্ছে ব্রাজিল

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১০:৪৫, আগস্ট ২৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১২:১৯, আগস্ট ২৯, ২০১৯

অবশেষে নিজের অবস্থান থেকে সরে এলেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জেয়ার বলসোনারো। পৃথিবীর ফুসফুস খ্যাত অ্যামাজন বনের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক সহায়তা নেওয়ার ব্যাপারে অস্বীকৃতি জানিয়ে এলেও শেষ পর্যন্ত ইতিবাচক হয়েছেন তিনি। বুধবার চিলির সহায়তা গ্রহণ করার ঘোষণা দিয়েছেন।

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জেইর বলসোনারো

১৫ আগস্ট থেকে জ্বলছে ব্রাজিলের অ্যামাজন জঙ্গল। এর মধ্যেই গত বৃহস্পতি থেকে শুক্রবারের মধ্যে নতুন করে অ্যামাজনের এক হাজার ২০০টি স্থানে আগুন ছড়িয়ে পড়েছে। নতুন করে আগুন ছড়িয়ে পড়ার পর কেন্দ্রীয় সরকারের শরণাপন্ন হয়েছে ছয়টি রাজ্য। বিভিন্ন স্থানে ভয়াবহ রকমের আগুনের কুণ্ডলী তৈরি হয়েছে। এসব রাজ্যের কর্তৃপক্ষ আগুন নিয়ন্ত্রণে সামরিক বাহিনীর সহায়তা চাইছে। সেনা সহায়তা চাওয়া রাজ্যগুলো হচ্ছে পারা, রন্ডোনিয়া, রোরাইমা, টোকানটিন্স, একর এবং ম্যাটো গ্রোসো। এর মধ্যে রন্ডোনিয়া প্রদেশে ইতোমধ্যে সামরিক বাহিনীর বিমান থেকে পানি ঢালার কাজ শুরু হয়েছে।

ফরাসি প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বিবাদের জেরে প্রথমে আন্তর্জাতিক সহায়তা নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট। পরে ৯টি অঞ্চলের গভর্নর তাকে বিষয়টি পুনর্বিবেচনার অনুরোধ করে। এরপর চিলির সহায়তা নিতে রাজি হয়েছেন তিনি। 

চিলির প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠকের পর বলসোনারো বলেন, চারটি বিমান দিয়ে পানি ঢালবে চিলি। এছাড়া পরিস্থিতি মোকাবিলায় পরবর্তী পদক্ষেপ নির্ধারণে লাতিন আমেরিকার অন্যান্য দেশও বৈঠকে বসছে বলেও জানান তিনি। 

এর আগে ২৭ আগস্ট অ্যামাজনের সুরক্ষায় জি সেভেন দেশগুলোর ২০ মিলিয়ন ডলারের সহায়তা ফিরিয়ে দেওয়া হবে বলে ঘোষণা দেয় ব্রাজিল সরকার। তখন দেশটির মন্ত্রীরা জানান, ব্রাজিলের এই সহায়তার দরকার নেই। এটা দিয়ে বিদেশি রাষ্ট্রগুলো অ্যামাজনের নিয়ন্ত্রণ চাইছে। তবে এখন ওই সহায়তা গ্রহণের ব্যাপারে ইঙ্গিত দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট। এমনটাই জানিয়েছেন তার মুখপাত্র। অ্যামাজনের আগুন নেভাতে প্রস্তাবিত তহবিল নাকচ করে দেওয়ায় বিশ্বজুড়ে সমালোচনার মুখে পড়েন ব্রাজিলিয়ান প্রেসিডেন্ট। পরে প্রেসিডেন্ট প্রাসাদের বাইরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, ‘আমি কি ওটা (আগুন নেভানোর তহবিল নাকচ করে দেওয়া) বলেছিলাম?’

এবার চিলির সহায়তার ব্যাপারে রাজি হয়েছেন তিনি। তবে কবে থেকে চিলি কার্যক্রম শুরু করবে সে সম্পর্কে এখনও বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি।

/এমএইচ/বিএ/এমএমজে/

লাইভ

টপ