সৌদির কেনা ইউরোপীয় অস্ত্র সুদানের মিলিশিয়াদের হাতে

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২১:৫৩, আগস্ট ৩০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩০, আগস্ট ৩১, ২০১৯

ইউরোপ থেকে কেনা অস্ত্রের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সৌদি আরবের সক্ষমতা নিয়ে গুরুতর প্রশ্ন উঠেছে। অনুসন্ধানী সংবাদমাধ্যম গোষ্ঠী বেলিঙ্গক্যাট সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, সার্বিয়ার কাছে থেকে সৌদি আরবের কেনা অস্ত্র সুদানের মিলিশিয়াবাহিনী সুদানিজ র‍্যাপিড সাপোর্ট ফোর্সেসের (আরএসএফ) হাতে রয়েছে। এছাড়া সৌদি-ইয়েমেন সীমান্তে যুদ্ধরত সুদানি যোদ্ধাদের হাতেও রয়েছে সৌদির কেনা ইউরোপীয় অস্ত্র। এর ফলে সৌদি আরব তৃতীয় পক্ষের কাছে অস্ত্র সরবরাহ করে চুক্তি লঙ্ঘন করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

প্রতিবেদনে বেশ কয়েকটি ভিডিওর মাধ্যমে দাবি করা হয়েছে, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের নিয়োগকৃত সুদানি যোদ্ধাদের হাতে সার্বিয়া থেকে রিয়াদের কেনা অস্ত্র রয়েছে। যা সার্বিয়া ও সৌদি সরকারের মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তির লঙ্ঘন।

প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, চুক্তি অনুসারে সার্বিয়া উৎপাদিত কয়েক হাজার কালাশানিকভ রাইফেল তৃতীয় পক্ষের কাছে রফতানিযোগ্য নয় এবং শুধু সৌদি আরবের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ব্যবহার করবে। তবে এখন এই অস্ত্র হত্যাযজ্ঞ চালানো গোষ্ঠীর কাছে রয়েছে।

আরএসএফ’র বিরুদ্ধে সুদানে যুদ্ধাপরাধ সংঘটনের অভিযোগ রয়েছে। জুনে গণতন্ত্রপন্থীদের একটি বিক্ষোভে হত্যাযজ্ঞ চালিয়ে ১২০ জনকে হত্যার অভিযোগ রয়েছে এই মিলিশিয়াদের বিরুদ্ধে।

বিশেষজ্ঞদের মত তুলে ধরে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তৃতীয় পক্ষের কাছে অস্ত্র রফতানির প্রতিশ্রুতি প্রাথমিকভাবে রাজনৈতিক হলেও অন্য কোনও পক্ষের কাছে তা দিতে হলে সরবরাহকারী রাষ্ট্রের অনুমতি চাওয়া হয়। সূত্র: মিডল ইস্ট মনিটর।

 

/এএ/

লাইভ

টপ