হংকং-এর প্রত্যর্পণ বিল তুলে নেওয়ার ঘোষণা

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২৩:৪৫, সেপ্টেম্বর ০৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৪৫, সেপ্টেম্বর ০৪, ২০১৯

কয়েক মাসের টানা বিক্ষোভের মুখে চরম বিতর্কিত প্রত্যর্পণ বিল তুলে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন হংকং-এর ক্যারি লাম। গত জুনে এই বিল স্থগিতের ঘোষণা দেওয়ার পরও আন্দোলন অব্যাহত থাকায় বুধবার এক টেলিভিশন ভাষণে বিলটি প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন তিনি। আন্দোলনে পুলিশের ভূমিকার তদন্তে নতুন দুই ঊর্ধ্বতনে কর্মকর্তাকে তদন্ত কমিশনে যুক্ত করার কথাও জানান ক্যারি লাম। তবে এই ঘোষণাতেও সন্তুষ্ট না হয়ে বিক্ষোভ অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছে আন্দোলনকারীরা।বুধবার টেলিভিশনে প্রচার হয় ক্যারি লামের ভাষণ

এক সময়কার ব্রিটিশ কলোনি হংকং এখন চীনের অংশ। ‘এক দেশ, দুই নীতি’র অধীনে কিছু মাত্রায় স্বায়ত্তশাসন ভোগ করছে হংকং। অঞ্চলটির নিজস্ব বিচার ও আইন ব্যবস্থা রয়েছে, যা মূল চীনের চেয়ে ভিন্ন।  গত এপ্রিলে কথিত অপরাধী প্রত্যর্পণ বিল প্রণয়ের উদ্যোগ নেওয়া হয়। তবে আন্দোলনকারীদের আশঙ্কা, ওই বিল অনুমোদন করা হলে ভিন্নমতাবলম্বীদের চীনের কাছে প্রত্যর্পণের সুযোগ সৃষ্টি হবে। লাখো মানুষের উত্তাল গণবিক্ষোভের মুখে এক পর্যায়ে ওই বিলকে ‘মৃত’ বলে ঘোষণা দেন হংকংয়ের চীনপন্থী শাসক ক্যারি ল্যাম। তবে এতে আশ্বস্ত হতে না পেরে বিক্ষোভ অব্যাহত রেখেছে সেখানকার নাগরিকরা। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে হংকংয়ের স্বাধীনতা,বৃহত্তর গণতন্ত্র ও চীনের নিযুক্ত নির্বাহী প্রধানের পদত্যাগের দাবি।

বুধবার এক টেলিভিশন ভাষণে ক্যারি লাম বলেন, জনগণের উদ্বেগের সঙ্গে পূর্ণ একমত হয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বিলটি প্রত্যাহার করে নেওয়া হবে। তিনি বলেন, এই বিক্ষোভে হংকং-এর জনগণ দুঃখ পেয়েছে। ‘আর বিক্ষোভের সহিংসতা হংকং-কে চরম বিপদজনক পরিস্থিতির দিকে ঠেলে দিয়েছে। সরকার বা সমাজের প্রতি যে অসন্তোষই থাকুক না কেন, সমাধানের পথ সহিংসতা হতে পারে না’, বলেন ক্যারি লাম।

তিনি বলেন, ‘বর্তমানে সহিংসতা বন্ধ করা, আইন শৃঙ্খলা বজায় রাখা এবং সামাজিক শৃঙ্খলা পুনর্গঠন সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার। সরকার সহিংসতা ও অবৈধ কর্মকাণ্ড নিয়ন্ত্রণে কঠোর হবে’। তিনি বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ছাড়াও তিনি নিজে বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করে সরাসরি মানুষের সঙ্গে কথা বলে তাদের উদ্বেগ জানবেন।

তবে ক্যারি লামের ঘোষণাকে ভুয়া বলে অভিহিত করেছেন গণতন্ত্রপন্থী রাজনীতিবিদ উই চি ওয়াই। তিনি বলেন, ‘আমরা অবশ্যই পুলিশি বর্বরতা থামাবো। নাহলে বিক্ষোভ অব্যাহত থাকবে’। গণতন্ত্রপন্থী অ্যাকটিভিস্ট জোসুয়া ওয়াং ধারাবাহিক টুইটবার্তায় জানিয়েছেন, সব দাবি মেনে নেওয়ার আগ পর্যন্ত বিক্ষোভ অব্যাহত রাখা হবে।

 

/জেজে/

লাইভ

টপ