কাশ্মির নিয়ে আলোচনায় পাকিস্তানে সৌদি ও আমিরাতের কূটনীতিক

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০১:৫০, সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৪০, সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১৯

কাশ্মির নিয়ে ভারতের সঙ্গে চলমান উত্তেজনা হ্রাস করতে পাকিস্তান কূটনীতিক পাঠিয়েছে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। ৫ আগস্ট ভারত কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসন ও বিশেষ অধিকার বাতিলের পর এ ইস্যুতে নীরব ছিল উপসাগরীয় আরব দেশগুলো। কিন্তু বুধবার এক বিশেষ উড়োজাহাজে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আমিরাতের দুই কূটনীতিক পাকিস্তানে পৌঁছেছেন। মার্কিন বার্তা সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস এ খবর জানিয়েছে।

সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল বিন আহমেদ আল জুবায়ের ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ আব্দুল্লাহ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান বুধবার ইসলামাবাদ পৌঁছান। পাকিস্তানের পক্ষ থেকে এই কূটনীতিকের সফরকে একতার প্রতীক হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

দুই কূটনীতিক পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশির সঙ্গে বৈঠক করেছেন। বৈঠকের পর দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত বর্তমান সংকট মোকাবিলা, উত্তেজনা হ্রাস ও শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য সহযোগিতায় কাজ করবে।

এই দুই কূটনীতিক পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার সঙ্গেও বৈঠক করেছেন।

মঙ্গলবার কোরেশি জানিয়েছিলেন, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানের পরই এই কূটনীতিকরা সফরে আসছেন।

সৌদি ও আমিরাতের কূটনীতিকদের ইসলামাবাদে অবতরণের কয়েক মুহূর্ত আগে পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারের আসিফ গফুর জানিয়েছেন, কাশ্মির সংকট শান্তিপূর্ণ উপায়ে সমাধান না হলে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী শেষ গুলি ও শেষ সেনা পর্যন্ত লড়াই করে যাবে।

গত ৫ আগস্ট ৩৭০ ধারা বাতিলের মধ্য দিয়ে কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নেওয়ার পর স্বাভাবিকভাবেই ‘চিরবৈরী প্রতিবেশী’ পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক আরও খারাপ হচ্ছে ভারতের। ইসলামাবাদ এরইমধ্যে সাফ জানিয়ে দিয়েছে,তারা কাশ্মিরিদের জন্য তাদের সর্বস্ব দিয়ে লড়াই করবে। এমনকি যুদ্ধের জন্য পাকিস্তান ও সে দেশের সেনাবাহিনী প্রস্তুত বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

 

/এএ/

লাইভ

টপ