ছেলেকে জ্বালানিমন্ত্রী পদে নিয়োগ দিলেন সৌদি রাজা

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৩:২৯, সেপ্টেম্বর ০৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৫০, সেপ্টেম্বর ০৮, ২০১৯

সৌদি জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের শীর্ষপদে পরিবর্তনের ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির রাজা সালমান বিন আবদুলআজিজ আল সৌদ। এক রাজকীয় ডিক্রি জারি করে নতুন জ্বালানিমন্ত্রী করা হয়েছে রাজার পুত্র প্রিন্স আবুদলআজিজ বিন সালমানকে। এর মধ্য দিয়ে এই প্রথমবারের মতো রাজপরিবারের কাউকে অতি গুরুত্বপূর্ণ এ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হলো। সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে রবিবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।
তেলসমৃদ্ধ দেশটিতে এ মন্ত্রণালয়কে খুবই গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী সৌদি আরবের ডি ফ্যাক্টো শাসক যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সৎ ভাই।

এমন এক সময়ে জ্বালানি মন্ত্রণালয়ে নিজের ছেলেকে নিয়োগ দিলেন রাজা, যখন একদিকে সরকারি ব্যয় নির্বাহের জন্য তেলের ওপর নির্ভরতা বাড়ছে রাজতান্ত্রিক দেশটির। অন্যদিকে দাম কমছে জ্বালানি তেলের। আগে যেখানে ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের দাম ছিল ব্যারেল প্রতি ৮০ থেকে ৮৫ ডলার, এখন সেখানে এর ব্যারেল প্রতি দাম ৬০ ডলারেরও কম। এমন পরিস্থিতিতে সৌদি আরবের বাজেটেও ভারসাম্যের কথা বলছেন বিশ্লেষকরা।

জ্বালানি খাত নিয়ে প্রিন্স আবুদলআজিজ বিন সালমান-এর দীর্ঘ অভিজ্ঞতা রয়েছে। ১৯৮৫ সালে মাত্র ২০ বছর বয়সে তিনি তৎকালীন জ্বালানিমন্ত্রীর উপদেষ্টা নিযুক্ত হন। ১৯৯৫ সালে তাকে তেল উপমন্ত্রী করা হয়। প্রায় এক দশক ধরে এ দায়িত্ব পালনের পর তাকে সহকারী তেলমন্ত্রী করা হয়। ২০১৭ সালে জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি সহকারী তেলমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। শিক্ষাগত জীবনে তিনি কিং ফাহাদ ইউনিভার্সিটি অব পেট্রোলিয়াম অ্যান্ড মিনারেলস থেকে ডিগ্রি অর্জন করেন।

/এমপি/

লাইভ

টপ