যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যৌথ মহড়ায় অংশ নিতে সিরিয়ায় তুর্কি বাহিনী

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৯:৪৩, সেপ্টেম্বর ০৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৪৭, সেপ্টেম্বর ০৮, ২০১৯

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নিতে রবিবার (৮ সেপ্টেম্বর) সিরিয়ায় প্রবেশ করেছে তুর্কি সামরিক যান। মার্কিন সামরিক যানের সঙ্গে সেগুলো ক্রমাগত দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। কুর্দিদের নিয়ন্ত্রণে থাকা সীমান্ত এলাকায় ‘সেফ জোন’ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্য নিয়ে যৌথ মহড়া চালাবে দুই দেশের বাহিনী।

দুই বাহিনী
কুর্দিদের বিরুদ্ধে তুরস্কের অভিযোগ দীর্ঘদিনের। দেশটি কুর্দিদের সন্ত্রাসী মনে করে। তাদের দাবি ছিল,সিরিয়ায় কুর্দিদের সংগঠন ওয়াইপিজি আসলে তুরস্কে কুর্দিদের নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন পিকেকের শাখা। কুর্দি জাতীয়তাবাদের ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠিত পিকেকে তুরস্ক,ইরান,ইরাক ও সিরিয়ার অংশবিশেষ নিয়ে কুর্দিস্তান নামক একটি স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় আগ্রহী। পিকেকে তিন দশক ধরে তুরস্কের বিরুদ্ধে সশস্ত্র সংগ্রামে লিপ্ত রয়েছে। আফরিনসহ সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলের কুর্দি অধ্যুষিত এলাকা থেকে ২০১২ সালে সেনা প্রত্যাহার করে নেন দেশটির প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ। এরপর ডেমোক্র্যাটিক ইউনিয়ন পার্টির (পিওয়াইডি) কুর্দিরা ওই সময় এলাকাটির দায়িত্ব গ্রহণ করে। তারপর ওই অঞ্চল থেকে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসকে বিতাড়িত করে কুর্দিদের সশস্ত্র বাহিনী ওয়াইপিজি। আর তুরস্ক আফরিন থেকে ওয়াইপিজিকে বিতাড়িত করতে চায়, কারণ তারা বাহিনীটিকে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী হিসেবে বিবেচনা করে থাকে।

এবার কুর্দিদের নিয়ন্ত্রণে থাকা সীমান্ত এলাকায় ‘সেফ জোন’ প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনার অংশ হিসেবে যৌথ মহড়া চালাবে তুরস্ক ও যুক্তরাষ্ট্র। রবিবার তুর্কি সীমান্ত শহর আকাকালে থেকে ১৫ কিলোমিটার পূর্বে সিরিয়ার সীমান্ত এলাকায় মার্কিন পতাকাবাহী সামরিক যানের সঙ্গে যোগ দেয় তুর্কি পতাকাবাহী সামরিক যান।

রবিবার সিএনএন তুর্ক-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেইমান সয়লু বলেন, ‘ভৌগোলিক কারণে আমরা সুবিধাজনক অবস্থানে থাকলেও অভিবাসন ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের কারণে আমরা সুবিধা থেকে বঞ্চিত হই। যদি মার্কিন বাহিনী ইউফ্রেটিসের পূর্বে আমাদের বাহিনীর সঙ্গে টহল দিতে সক্ষম হয়, তাদের নিজেদের সেনাদের নিয়ে প্রবেশ করতে পারে এবং যদি ইদলিবে (সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে) তুর্কি পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র থেকে থাকে, তবে তা আমাদের পদক্ষেপের কারণেই সম্ভব হয়েছে।’

/এফইউ/

লাইভ

টপ