যুদ্ধবাজদের এড়িয়ে চলুন: যুক্তরাষ্ট্রকে রুহানি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৩:২০, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:২৬, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯

ওয়াশিংটনকে যুদ্ধবাজদের এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছেন ইরানি প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। যুক্তরাষ্ট্রের কট্টর জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টনকে ছাঁটাইয়ের প্রতিক্রিয়ায় তিনি এই পরামর্শ দেন। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা রুহানির এক টেলিভিশন ভাষণকে উদ্ধৃত করে এসব তথ্য জানিয়েছে।ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি

ইরানের ওপর চলমান যুক্তরাষ্ট্রের সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের নীতির অন্যতম সমর্থক ছিলেন ওয়াশিংটনের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন। অতীতে ইরাক ও আফগানিস্তানে মার্কিন হামলা শুরুতেও তার ভূমিকা ছিল বলে মনে করা হয়। মঙ্গলবার এক টুইট বার্তায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তাকে ছাঁটাইয়ের ঘোষণা দেন।

বোল্টনকে ছাঁটাইয়ের প্রতিক্রিয়ায় এক টেলিভিশন ভাষণে রুহানি বলেন, আমেরিকানদের উপলব্ধি করতে হবে যে যুদ্ধোন্মদনা এবং যুদ্ধবাজেরা তাদের জন্য সুবিধাজনক কিছু নয়। তাদের কেবল যুদ্ধোন্মদনাই বাদ দিতে হবে, তাই নয় বরং সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের নীতিও এড়িয়ে যেতে হবে।

গত বছর ইরানের সঙ্গে ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পারমাণবিক চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহার করে নেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। ওই বছর থেকে তেহরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা ক্রমাগত কঠোর করে আসছে যুক্তরাষ্ট্র। সম্প্রতি মধ্যপ্রাচ্যে সামরিক শক্তি বৃদ্ধি করে ইরানের ওপর সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের মধ্য দিয়ে আলোচনায় বাধ্য করার চেষ্টা করছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা পুর্নবহালকে ‘অর্থনৈতিক সন্ত্রাস’ বলে অভিহিত করে আসছে ইরান।

বুধবার টেলিভিশন ভাষণে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেন, ‘শত্রুরা যতোদিন ইরানের ওপর চাপ প্রয়োগ অব্যাহত রাখবে ততদিন আমাদের প্রতিরোধের নীতি বদলাবে না’।

ইরানের প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা হাশেমাদ্দিন আছহেনা জন বোল্টনকে ছাঁটাইয়ের প্রশংসা করে বলেন, এটা তেহরানের ওপর আমেরিকার সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের নীতির পরাজয়ের স্পষ্ট চিহ্ন। তবে ইরানের এক শীর্ষ নিরাপত্তা কর্মকর্তা আলি শামখানি মনে করছেন, বোল্টনের ছাঁটাই তেহরানে চলমান মার্কিন নীতির ওপর কোনও প্রভাব ফেলবে না।

বোল্টনকে ছাঁটাইয়ের ঘোষণা দিতে গিয়ে ট্রাম্প তার টুইটে লেখেন, ‘গত রাতে আমি জন বোল্টনকে জানিয়ে দিয়েছি যে,  হোয়াইট হাউসে তার আর কোনও কাজ নেই। তার অনেক পরামর্শের সঙ্গে আমার মতপার্থক্য রয়েছে’। আফগানিস্তানের বিদ্রোহী গোষ্ঠী তালেবানের সঙ্গে শান্তি আলোচনা ভেঙে দেওয়ার পর বোল্টনকে ছাঁটাইয়ের কথা জানান ট্রাম্প।

বোল্টনকে ছাঁটাইয়ের কিছুক্ষণের মধ্যে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেন, জাতিসংঘের আসন্ন সাধারণ অধিবেশনের সময় কোনও পূর্বশর্ত ছাড়াই ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সঙ্গে বৈঠক করতে পারেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

 

/জেজে/বিএ/

লাইভ

টপ