কাশ্মিরে গত পাঁচ সপ্তাহে গ্রেফতার প্রায় ৪ হাজার

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৮:৫৪, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৫৮, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯

গত মাসে কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসন কেড়ে নেওয়ার পর সেখানে ভারতীয় বাহিনীর অভিযানে প্রায় চার হাজার মানুষকে আটক করা হয়েছে। ভারতীয় সরকারের এক পরিসংখ্যান হাতে পাওয়ার বরাতে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স। গত ৬ সেপ্টেম্বর তারিখের এই পরিসংখ্যান অনুযায়ী কাশ্মিরে প্রায় ৩ হাজার আটশো মানুষকে গ্রেফতার করা হয়। তবে এর মধ্যে দুই হাজার ৬০০ জনকে বিভিন্ন শর্তে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বা জম্মু-কাশ্মির পুলিশ এই আটকের সংখ্যা নিয়ে কোনও মন্তব্য করেনি।

গত ৫ আগস্ট ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের মধ্য দিয়ে কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসনের অধিকার ও বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নেয় বিজেপি নেতৃত্বাধীন দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার। লাদাখ ও কাশ্মিরকে দুটি পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করতে পার্লামেন্টে বিল পাস হয়। এই পদক্ষেপকে কেন্দ্র করে কাশ্মিরজুড়ে মোতায়েন করা হয়েছে বিপুলসংখ্যক অতিরিক্ত সেনা। জারি করা হয়েছে বিধিনিষেধ। কাশ্মিরের সাবেক দুই মুখ্যমন্ত্রীসহ শত শত মানুষকে আটকের কথা জানা গেলেও মোট আটকের সংখ্যা বিষয়ে কোনও তথ্য প্রকাশ করেনি ভারত সরকার।

বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ৬ সেপ্টেম্বর ভারত সরকারের এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে কাশ্মিরে অভিযান শুরুর পর থেকে ৩ হাজার আটশো মানুষকে আটক করা হয়েছে। তবে এসব মানুষকে কিসের ভিত্তিতে আটক করা হয়েছে তা স্পষ্ট নয়। এক ভারতীয় কর্মকর্তা জানিয়েছেন, এদের অনেককেই জননিরাপত্তা আইনের অধীনে গ্রেফতার করা হয়েছে। কাশ্মিরের জন্য প্রণীত এই বিশেষ আইনের অধীনে বিনা বিচারে যে কাউকে দুই বছর পর্যন্ত আটক রাখা যায়।

গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে ৩ হাজারের বেশি মানুষকে পাথর নিক্ষেপকারী ও অন্যান্য দুষ্কর্মের জন্য আটক করা হয়েছে বলে ওই সরকারি নথিতে বলা হয়েছে। রবিবার (৮ সেপ্টেম্বর) কাশ্মিরের ৮৫ বন্দিকে আগ্রা কারাগারে স্থানান্তর করা হয়েছে বলে রয়টার্সকে জানিয়েছে একটি পুলিশ সূত্র।

/জেজে/

লাইভ

টপ