কাশ্মির নিয়ে উত্তেজনার মধ্যেই ফের ট্রাম্প-ইমরান বৈঠক

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৭:২১, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৭:২৪, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯

কাশ্মীর নিয়ে ভারতের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যেই ২১ সেপ্টেম্বর ফের যুক্তরাষ্ট্র সফরে যাচ্ছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের বৈঠকে যোগ দিতেই দেশটিতে যাচ্ছেন তিনি। এবারের সফরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে দুই দফা বৈঠকের কর্মসূচি রয়েছে ইমরানের। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে পাকিস্তানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডন। টাইমস অব ইন্ডিয়া ও দ্য হিন্দু-র মতো ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোতেও একই রকমের খবর দেওয়া হয়েছে।
প্রথম দফা বৈঠকে একসঙ্গে মধ্যাহ্নভোজে অংশ নেবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ইমরান খান। তবে দ্বিতীয় দফা বৈঠক চা জাতীয় কিছু পানের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে বলে জানিয়েছে জিও নিউজ।

দ্য হিন্দু জানিয়েছে, ট্রাম্প ছাড়াও অন্যান্য বিশ্বনেতাদের সঙ্গেও সাক্ষাতের কর্মসূচি রয়েছে ইমরান খানের। এসব সাক্ষাতে তিনি ভারত অধিকৃত কাশ্মিরের স্বায়ত্ত্বশাসন বাতিল এবং অঞ্চলটির উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সম্পর্কে বিশ্বনেতাদের অবহিত করবেন তিনি।

২০১৯ সালের ৫ আগস্ট ভারত অধিকৃত কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসন বাতিল করে অঞ্চলটিকে দুই টুকরো করে দেয় দিল্লি। ওই দিন সকাল থেকে কার্যত অচলাবস্থার মধ্যে নিমজ্জিত হয় দুনিয়ার ভূস্বর্গ খ্যাত কাশ্মির উপত্যকা। ফোনে ট্রাম্পকে সামগ্রিক পরিস্থিতি জানান পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। পরে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও একই ইস্যুতে ট্রাম্পকে ফোন করে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে নালিশ জানান। দুই প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফোনালাপের পর টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে তিনি কাশ্মিরের বিদ্যমান অবস্থাকে ‘একটি কঠিন পরিস্থিতি’ হিসেবে উল্লেখ করেন। পরদিন হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে অঞ্চলটির বিদ্যমান অবস্থাকে ‘উত্তেজনাপূর্ণ’ হিসেবে উল্লেখ করেন ট্রাম্প।

সম্প্রতি হোয়াইট হাউজে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘কাশ্মির খুবই জটিল একটি জায়গা। সেখানে হিন্দু রয়েছে মুসলিমও রয়েছে। আমি বলতে পারি না যে তারা একসঙ্গে ভালো রয়েছে। সেখানে মধ্যস্থতা করতে আমি যতটুকু সম্ভব করবো। আপনারা দুটি দেশ, দীর্ঘ সময় ধরে একসঙ্গে এবং ঘনিষ্ঠভাবে থাকতে পারছেন না, এটা খুবই বিস্ফোরক পরিস্থিতি।’

ট্রাম্প বলেন, ‘আমি মনে করি আমরা বিষয়টিকে সাহায্য করছি। যেমনটা আপনারা জানেন, দুই দেশের মধ্যে প্রচণ্ড রকম সমস্যা রয়েছে। মধ্যস্থতা করতে আমি যতটা সম্ভব করবো অথবা কিছু তো করবো।’

এর আগে ইমরান খান ও নরেন্দ্র মোদি-র সঙ্গে ফোনালাপের পর টুইটারে দেওয়া পোস্টে ট্রাম্প বলেন, 'আমার দুই ভালো বন্ধু ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে কথা হয়েছে। বাণিজ্য ও কৌশলগত অংশীদারিত্ব নিয়ে আমাদের মধ্যে আলোচনা হয়েছে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে, কাশ্মিরে উত্তেজনা হ্রাসে কাজ করার বিষয়ে ভারত ও পাকিস্তানের সঙ্গে কথা হয়েছে। একটি কঠিন পরিস্থিতি, কিন্তু ভালো আলোচনা হয়েছে!’

/এমপি/

লাইভ

টপ