যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনা বাতিলের পর রাশিয়ামুখী তালেবান

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২২:৩৯, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:৪৬, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯

রাশিয়ার রাজধানী মস্কোয় দেশটির কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করেছে তালেবান প্রতিনিধিরা। মাত্র কয়েকদিন আগে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ওই সশস্ত্র গোষ্ঠীর মাসব্যাপী শান্তি আলোচনাকে ‘মৃত’ বলে ঘোষণা দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর ঠিক কয়েক দিন পর মস্কোয় আফগানিস্তান বিষয়ক রাশিয়ার বিশেষ দূত জামির কাবুলোভের সঙ্গে বৈঠক করেছেন তালেবান প্রতিনিধিরা। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ওই সংগঠনের কাতারভিত্তিক মুখপাত্র সুহাইল শাহিন।

টুইন টাওয়ারে হামলার পর মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাটো আফগানিস্তানে হামলা চালিয়ে তালেবান সরকারকে ক্ষমতা থেকে উৎখাত করে। তখন থেকেই যুক্তরাষ্ট্র ও তাদের মিত্রদের বিরুদ্ধে সশস্ত্র লড়াই করে যাচ্ছে গোষ্ঠীটি। দীর্ঘ ১৮ বছরের যুদ্ধ অবসানের লক্ষ্যে গত বছরের জুন থেকে কাতারের রাজধানী দোহায় মার্কিন কর্মকর্তাদের সঙ্গে ধারাবাহিক আলোচনা শুরু করেন তালেবান কর্মকর্তারা। গত মাসে এরই পরিপ্রেক্ষিতে একটি শান্তিচুক্তিতে একমত হয় দুই পক্ষ। তবে সম্প্রতি কাবুলে তালেবান হামলায় এক মার্কিন সেনা নিহতের পর ওই সব শান্তি আলোচনার মৃত্যু হয়েছে বলে জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তারপরই চলমান আলোচনা ভেস্তে যায়।

রাশিয়ার সংবাদমাধ্যম তাসকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, ‘বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্র ও তালেবানের মধ্যকার শান্তি আলোচনা পুনরায় শুরু করার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিয়েছে রাশিয়া। এসময় ওই সংগঠনের প্রতিনিধিরা তাদের মধ্যকার আলোচনা পুনর্নির্মাণের গুরুত্বের কথা বারবার জানান। পুনরায় শান্তি আলোচনা শুরু করতেও আগ্রহী তারা।’

সম্প্রতি মার্কিন কূটনীতিকরা কয়েক দফা তালেবান প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করে আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহারের ব্যাপারে সম্মত হয়েছিলেন। বিনিময়ে তারা সেখানে নিরাপত্তার নিশ্চয়তা চেয়েছিলেন। এরই প্রেক্ষিতে গত মাসে শান্তিচুক্তি স্বাক্ষরের পর যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ মধ্যস্থতাকারী জালমে খলিলজাদ জানিয়েছেন, ‘আফগানিস্তানের ৫টি সেনাঘাঁটি থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের একটি খসড়া কাঠামো নিয়ে সমঝোতায় পৌঁছেছেন তারা।’ পরে কাবুলে আত্মঘাতী বোমা হামলায় এক মার্কিন সেনাসহ বেশ কয়েক জন নিহত হয়। এতে তালেবানদের দায় স্বীকারের পর ওই শান্তিচুক্তির খসড়া বাতিল বলে ঘোষণা দেন ট্রাম্প।

শাহিন বলেন, শান্তি সমঝোতা যখন ‘সফলভাবে’ শেষে হয়েছে ও শিগগিরই একটি চুক্তি ঘোষণা হবে এমন সময় হঠাৎ করে মার্কিন প্রেসিডেন্টের ওই ঘোষণা আসে। এটা আমাদের জন্য বিস্ময়কর ছিল কারণ, আমরা আমেরিকান সমঝোতাকারী দলের সঙ্গে শান্তিচুক্তি প্রায় সম্পন্ন করে ফেলেছিলাম।

 

 

/এইচকে/এএ/

লাইভ

টপ