কাশ্মির ইস্যুতে মোদির বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রে মামলা দায়ের

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২২:০৬, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:১৩, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের একটি আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার  হাউস্টন ফেডারেল আদালতে এই মামলা দায়ের করেছে কাশ্মিরের কয়েকজন অধিকারকর্মী ও শিখ সম্প্রদায়ের স্বাধীনতাপন্থী সংগঠন খালিস্তান রেফারেন্ডাম ফ্রন্ট। এই মামলায় কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর সেখানকার জনগণের ওপর নির্যাতন, আটক, গুম ও হত্যার মাধ্যমে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয়েছে।

২০১৯ সালের ৫ আগস্ট ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের মধ্য দিয়ে কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসনের অধিকার ও বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নেয় বিজেপি নেতৃত্বাধীন দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার। এই পদক্ষেপকে ঘিরে কাশ্মিরজুড়ে মোতায়েন করা হয়েছে বিপুলসংখ্যক অতিরিক্ত সেনা। জারি করা হয়েছে বিধিনিষেধ। গ্রেফতার করা হয়েছে সেখানকার শত শত নেতাকর্মীকে। ৩৯ দিন পর সম্প্রতি কারফিউ তুলে নিলেও থমথমে পরিস্থিতি যায়নি কাশ্মিরের। নতুন কাশ্মির প্রতিষ্ঠা ও সেখানকার উন্নয়নের জন্য এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষে এমন দাবি করা হলেও সেখানে মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে বলে অভিযোগ করে আসছে পাকিস্তান।

আগামী ২২ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাষ্ট্রের হাউস্টনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির যৌথ সমাবেশে ভাষণ দেওয়ার কথা রয়েছে। হাউস্টনে নরেন্দ্র মোদির উপস্থিতির কয়েকদিন আগেই সেখানকার আদালতে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হলো।

হাউস্টন ক্রনিকল নামের একটি স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, কাশ্মিরে মানবাধিকার লঙ্ঘনসহ বিভিন্ন নিপীড়নের ঘটনায় ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। খালিস্তান রেফারেন্ডাম ফ্রন্ট জানিয়েছে, কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন হয়েছে। মানবাধিকার লঙ্ঘন ও অবৈধ দখলদারিত্বের অভিযোগে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিহ শাহ ও কানওয়াল জিৎ সিংকেও অভিযুক্ত করা হয়েছে এ মামলায়।

 

/এইচকে/জেজে/

লাইভ

টপ