দেশদ্রোহীদের আস্তানা হয়ে উঠেছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়: বিজেপি নেতা

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২২:৪৩, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:৪৪, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯

ভারতের যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস দেশদ্রোহী ও কমিউনিস্টদের আস্তানা হয়ে উঠেছে বলে মন্তব্য করেছেন পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপি প্রেসিডেন্ট দিলিপ ঘোষ। ভারতের ক্ষমতাসীন দলটির এই নেতা হুঁশিয়ারি দিয়ে শুক্রবার বলেন, তাদের ক্যাডাররা বালাকোটের মতো সার্জিক্যাল অভিযান (পাকিস্তানের অভ্যন্তরে চালানো ভারতীয় বিমানবাহিনীর অভিযান) চালিয়ে তা ধ্বংস করে দেবে।পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি সভাপতি দিলিপ ঘোষ

গত বৃহস্পতিবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এক নবীন বরণ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যান ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢোকার মুখেই শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের মুখে পড়েন তিনি। সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা, কালবুর্গি-রোহিত, ভেমুলার খুন, এনআরসিসহ বিজেপির বিভিন্ন নীতির বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকেন শিক্ষার্থীরা। এক পর্যায়ে ধাক্কাধাক্কিতে মাটিতে পড়ে যান বাবুল। পরে পুলিশ পাহারায় ফিরে যান তিনি। এই ঘটনায় শুক্রবার পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেস সরকারকে দায়ী করেন বিজেপি নেতা দিলিপ ঘোষ।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপি’র প্রেসিডেন্ট দিলিপ ঘোষ বলেন, তৃণমূল কংগ্রেস সরকার অলস দাঁড়িয়ে থেকে বাবুল সুপ্রিয়কে খুন হতে দেওয়ার অপেক্ষা করছিল। এ সময় ঘটনার বর্ণনা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে লিখিতভাবে জানাবেন বলেও জানান তিনি।

এক সংবাদ সম্মেলনে শুক্রবার দিলিপ ঘোষ বলেন, ‘দেশদ্রোহী ও কমিউনিস্ট কর্মকাণ্ডের আস্তানা হয়ে উঠেছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। এই ধরণের ঘটনা সেখানে এবারই প্রথম ঘটেছে তা নয়। আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী পাকিস্তানের সন্ত্রাসী আস্তানা নির্মূল করতে যেরকম অভিযান চালিয়েছে আমাদের ক্যাডাররাও সেরকম অভিযান চালিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের দেশদ্রোহীদের আস্তান নির্মূল করে দেবে’।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হওয়ায় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুরঞ্জন দাসের পদত্যাগ দাবি করেন দিলিপ ঘোষ।

/জেজে/

লাইভ

টপ