অস্ট্রেলিয়ায় বৈধ হলো গর্ভপাত

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১২:১৭, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১২:১৯, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৯

অস্ট্রেলিয়ার সবগুলো রাজ্যেই গর্ভপাত বৈধ করা হয়েছে। নিষিদ্ধ থাকা সর্বশেষ রাজ্য নিউ সাউথ ওয়েলস বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত আইন সংস্কারের পক্ষে ভোট দিয়েছে। ১১৯ বছরের পুরনো গর্ভপাত নিষিদ্ধের আইনকে বিরোধীরা সেঁকেলে হিসেবে সমালোচনা করে আসছিলেন। পার্লামেন্টে কয়েক সপ্তাহের উত্তপ্ত বিতর্কের পর গর্ভপাতকে বৈধ করার আইন প্রণয়ণ করা সম্ভব হয়।

পূর্বের আইন অনুযায়ী নিউ সাউথ ওয়েলসে নারীর স্বাস্থ্য মারাত্মক ঝুঁকিতে রয়েছে বলে চিকিৎসক সিদ্ধান্ত দিলেই শুধু গর্ভপাত করা সম্ভব হতো।

বৃহস্পতিবার রাজ্যের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে প্রায় একশো সংশোধনী নিয়ে আলোচনা শেষে ২৬-১৪ ভোটে গর্ভপাত বৈধ করার পক্ষে রায় আসে। পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষে এরই মধ্যে অনুমোদন পেয়েছে এই আইন।

নতুন আইন অনুযায়ী গর্ভের ২২ সপ্তাহের মধ্যে গর্ভপাত করা যাবে। তবে এর পরে তা করতে হলে অন্তত দুইজন চিকিৎসকের সায় থাকতে হবে।  

তবে এই সংস্কারের কঠোর বিরোধিতা করে বেশ কয়েকজন অধিকারকর্মী ও আইনপ্রণেতা। নিজেদের বিশ্বাসের কারণে গর্ভপাতের বিরোধিতার পাশাপাশি তারা দেরিতে গর্ভপাতের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

লেবার পার্টির আইনপ্রণেতা পেনি শার্পে বলেন, বর্তমান আইন অনুযায়ী গর্ভপাতের সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে নারী ও চিকিৎসকের দশ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে, এটা ঠিক না। আইনের সংস্কারকে তিনি রাজ্যের নারীদের বড় ধরনের অর্জন বলে অভিহিত করেন তিনি।

 

/জেজে/

লাইভ

টপ