ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলাকারীর আদালত স্থানান্তরের আবেদন প্রত্যাহার

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:০৯, অক্টোবর ০৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:১০, অক্টোবর ০৩, ২০১৯

নিউ জিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে হামলাকারী ব্রেন্টন ট্যারান্ট বিচারিক আদালত স্থানান্তরের আবদেন প্রত্যাহার করেছে। বৃহস্পতিবার ট্যারান্ট তার আবেদন প্রত্যাহার করে মার্চে চালানো ওই হামলায় ৫১ জন মুসল্লি নিহত হয়েছিলেন।

ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, সাউথ আইল্যান্ড সিটি থেকে বিচারিক আদালত স্থানান্তর করতে অভিযুক্ত বন্দুকধারী ব্রেন্টন ট্যারান্টের করা আবেদন বিবেচনায় ক্রাইস্টচার্চে বিচারপূর্ব শুনানি করে উচ্চ আদালত।
কিন্তু আদালত কার্যবিবরণীর শুরুতে বিচারক ক্যামেরন ম্যান্ডার ঘোষণা দেন বাদী এ আবেদন প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আগস্টে এ আবেদন করা হয়েছিল ফলে ফলে এ ব্যাপারে আদালতের কোনও সিদ্ধান্ত দেওয়ার প্রয়োজন হয়নি। 

১৫ মার্চ (শুক্রবার) ২৮ বছর বয়সী অস্ট্রেলীয় নাগরিক ব্রেন্টন ট্যারান্ট নামের সন্দেহভাজন হামলাকারীর লক্ষ্যবস্তু হয় নিউ জিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদ। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী, গুলি চালিয়ে ৫০ জন মুসল্লিকে হত্যা করে ট্যারান্ট। উগ্র মুসলিমবিদ্বেষী এ হামলাকারী এর আগে অনলাইনে ১৬ হাজার ৫০০ শব্দের কথিত এক ইশতেহারে নৃশংস এ হামলার পেছনে নিজের অবস্থান তুলে ধরে। এতে নিউ জিল্যান্ডের ইতিহাসের নৃশংস ওই খুনি দাবি করে, শ্বেতাঙ্গরা গণহত্যার শিকার। যুক্তরাষ্ট্রে গৃহযুদ্ধ ছড়িয়ে দেওয়ার আগ্রহের কথাও জানায় সে।

২৮ বছর বয়সী অস্ট্রেলিয়ার এ নাগরিক ৫১ জনকে হত্যা, ৪০ জনকে হত্যা প্রচেষ্টা চালানোর এবং সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার ঘটনায় কোনও দোষ স্বীকার করেনি।

আগামী বছরের ২ জুন ক্রাইস্টচার্চে ট্যারান্টের বিচার কার্য শুরু হবে।

 

 

/এএ/

লাইভ

টপ