সিরিয়া অভিযানে ১০৯ জন সন্ত্রাসী নিহত: এরদোয়ান

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৯:০৫, অক্টোবর ১০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:০৬, অক্টোবর ১০, ২০১৯

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান বলেছেন, সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে শুরু হওয়া সামরিক অভিযানে ১০৯ জন সন্ত্রাসীকে হত্যা করা হয়েছে। বুধবার অভিযান শুরু হওয়ার পর বৃহস্পতিবার তিনি এ তথ্য জানান। রুশ সংবাদমাধ্যম স্পুটনিক নিউজ এখবর জানিয়েছে।

বুধবার সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে তুরস্ক ‘পিস স্প্রিং অপারেশন’ শুরু করে। অভিযানের অংশ হিসেবে তুরস্ক সমর্থিত সিরিয়ান ন্যাশনাল আর্মি ইউফ্রেতাসের পূর্ব দিকে প্রবেশ করে। তুর্কি অভিযানে সহযোগিতার জন্য তারা অগ্রসর হচ্ছে। কুর্দি নিয়ন্ত্রিত সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে অভিযানের দ্বিতীয় দিনে বিমান হামলা ও স্থল অভিযান জোরালো করেছে তুরস্ক। দেশটির সেনাবাহিনী জানিয়েছে, তারা বেশ কিছু লক্ষ্যবস্তু দখল করেছে। এছাড়া সীমান্তের কেন্দ্রীয় অঞ্চলে তুমুল লড়াই চলছে।

আঙ্কারায় দেওয়া এক ভাষণে তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, আমরা গতকাল (বুধবার, ৯ অক্টোবর) অভিযান শুরু করেছি। প্রথমে কামান দাগা হয়, পরে আকাশপথে এবং সন্ধ্যায় পদাতিক বাহিনী অভিযান শুরু করে। এখন পর্যন্ত ১০৯ জন সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে, অনেকে আহত হয়েছে অথবা আত্মসমর্পণ করেছে।

এরদোয়ান আরও বলেন, তুরস্কের বিরুদ্ধে অপপ্রচার শুরু হয়েছে। বলা হচ্ছে, তুর্কিরা বেসামরিক নাগরিকদের ওপর বোমা হামলা চালাচ্ছে। এই অভিযোগ যারা করছে তারাই বেসামরিকদের হামলা করে, আপনাদের কোনও লজ্জা নাই। আমরা অপপ্রচারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছি। মানুষকে প্রতিটি পদক্ষেপের বিষয়ে অবহিত করছি।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, আমাদের জিজ্ঞেস করা হচ্ছে, আইএস জঙ্গিদের নিয়ে আমরা কী করব। এলাকাটির নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর আমাদেরকে নিশ্চিত করতে হবে, যাতে করে করে আইএস যেনও আর সক্রিয় না থাকতে পারে। এরপর যা আমাদের করা দরকার তা করব। যাদের কারাগারে পাঠানো দরকার তাদের কারাগারে পাঠানো হবে, বিদেশি জঙ্গিদের তাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠাবো। ফলে আইএস আর সক্রিয় থাকতে পারবে না। আমি নিশ্চয়তা দিচ্ছি।

এর আগে বৃহস্পতিবার তুরস্কের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ঘোষণা দেন, সিরিয়ায় সামরিক অভিযান পরিকল্পনা মতোই এগুচ্ছে। তারা নির্দিষ্ট লক্ষ্যস্থল দখল করা গেছে।

/এএ/

লাইভ

টপ