আল কায়েদার শীর্ষ বোমা প্রস্তুতকারীকে হত্যার দাবি যুক্তরাষ্ট্রের

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০২:১৭, অক্টোবর ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০২:২১, অক্টোবর ১১, ২০১৯

আল কায়েদার শীর্ষ বোমা প্রস্তুতকারী ইব্রাহিম হাসান আল আসিরিকে দুই বছর আগে ইয়েমেনে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বিষয়টি নিশ্চিত করেন। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের দাবি, ইব্রাহিম বিভিন্ন স্থানে বিমান হামলার ষড়যন্ত্রের সঙ্গে জড়িত ছিলো।

২০০১ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার, পেন্টাগন এবং পেনসিলভানিয়ায় সন্দেহভাজন আল কায়েদার হামলায় প্রাণ হারায় ৩ হাজার মানুষ। এই হামলার জেরে ওই সশস্ত্র গোষ্ঠীর তৎকালীন শীর্ষ নেতা ওসামা বিন লাদেনকে আফগানিস্তানের তালেবান সরকার আশ্রয় দিচ্ছে বলে অভিযোগ তুলে দেশটিতে আগ্রাসন শুরু করে যুক্তরাষ্ট্র। ২০১১ সালে পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদের একটি বাড়িতে যুক্তরাষ্ট্রের একটি বিশেষ বাহিনীর হামলায় নিহত হয় আল কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেন। যুক্তরাষ্ট্রে ওই সন্ত্রাসী হামলার পর থেকে তালেবানদের বিভিন্ন নেতা ও সদস্যকে হত্যা করেছে যুক্তরাষ্ট্র বাহিনী।

ওয়াশিংটনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তারা নিশ্চিত যে, ২০১৭ সালে আল কায়েদার প্রভাবশালী সদস্য ও শীর্ষ বোমা প্রস্তুতকারী আল-আসিরিকে হত্যা করা হয়েছে। ওই সশস্ত্র গোষ্ঠীর ঘনিষ্ঠ ও উপজাতিদের উদ্ধৃত করে যুক্তরাষ্ট্রের বার্তাসংস্থা এপি’র ২০১৮ সালের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, ইয়েমেনের পূর্বাঞ্চলীয় মেহরিবে যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন হামলায় আল-আসিরি ও তার কয়েক সহযোগী নিহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে ওই হত্যার বিষয় নিশ্চিত করে হোয়াইট হাউজ। তবে ওই অভিযানের বিস্তারিত তথ্য বা কেন এতো পরে নিশ্চিত করা হলো তার কোনও ব্যাখ্যা দেয়নি তারা।

২০০৯ সালে আল কায়েদা আরাবিয়ান পেনিন্সুলা (একিউএপি) গঠনের পরে আল-কায়েদার ইয়েমেনি ও সৌদি শাখাগুলোর একীভূত হওয়ার পরে  বোমা প্রস্তুতকারী হয়ে ওঠে আল-আসিরি। সে রিয়াদে রসায়নে লেখাপড়া করেছে। বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউজের বিবৃতিতেও ওই গোষ্ঠীটির দ্বারা পরিচালিত বেশ কয়েকটি ব্যর্থ হামলায় আল-অসিরির ভূমিকা নিশ্চিত করা হয়েছে।

/এইচকে/

লাইভ

টপ