ব্রেক্সিট চুক্তি নিয়ে শেষ মুহূর্তের আলোচনা

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৬:৪৩, অক্টোবর ১৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৪৯, অক্টোবর ১৬, ২০১৯

ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সম্মেলনের আগে একটি ব্রেক্সিট চুক্তি চুড়ান্ত করতে শেষ মুহূর্তের আলোচনা শুরু করেছেন ইইউ ও যুক্তরাজ্যের কর্মকর্তারা। বৃহস্পতিবার ওই সম্মেলনের আগ পর্যন্ত আলোচনা চলবে। আলোচনার অগ্রগতি মন্ত্রীসভাকে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন অবহিত করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। অসমর্থিত সূত্রের বরাতে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, মঙ্গলবারও একটি চুক্তিতে পৌঁছানোর আশা করা হচ্ছে।

ব্রেক্সিট ইস্যুতে সমঝোতায় পৌঁছাতে ব্যর্থ হয়ে চলতি বছরের গত মে মাসে পদত্যাগের ঘোষণা দেন যুক্তরাজ্যের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। তিনি সরে দাঁড়ানোর পর ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন কট্টর ব্রেক্সিটপন্থী বরিস জনসন। নির্বাচিত হওয়ার পর আগামী ৩১ অক্টোবর নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ব্রেক্সিট বাস্তবায়নের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। প্রয়োজনে চুক্তিহীন ব্রেক্সিটের পথে হাঁটারও ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার শুরু হতে যাওয়া ইইউ নেতাদের দুই দিনের সম্মেলনের আগে একটি চুক্তিতে পৌঁছাতে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দৌড়াতে হচ্ছে। ওই সম্মেলনে চুক্তি অনুমোদিত হতে হলে তার আগেই চুক্তিটি আইনি বিবরণসহ প্রকাশিত হতে হবে। ইইউ-এর পাশাপাশি যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টেও চুক্তিটি অনুমোদিত হতে হবে।

ব্রেক্সিট চুক্তি নিয়ে আলোচনায় উল্লেখযোগ্য অগ্রগতির কথা বলছেন দুই পক্ষের প্রতিনিধিরা। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মতপার্থক্য দূর করা সম্ভব হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তারা। মঙ্গলবার ইইউ প্রধান মধ্যস্থতাকারী মিশেল বার্নিয়ে ইইউ পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের জানিয়েছেন, বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সমঝোতা বাকি রয়েছে। অসমর্থিত সূত্র অনুযায়ী আয়ারল্যান্ডে দুই পক্ষের স্থলসীমান্তে নিয়ন্ত্রণ এড়াতে ব্রিটেনের উত্তর আয়ারল্যান্ড প্রদেশকে কোনোভাবে ইইউ-র শুল্ক কাঠামোর মধ্যে অন্তর্গত রাখার খুঁটিনাটি বিষয় নিয়ে আলোচনা হচ্ছে।

গত মাসে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে পাস হওয়া বেন অ্যাক্ট অনুযায়ী আগামী শনিবার আইনপ্রণেতারা ব্রেক্সিট চুক্তি অনুমোদন না করলে ইইউ-এর কাচে ব্রেক্সিট পেছানোর আবেদন করবেন প্রধানমন্ত্রী জনসন।

৩১ অক্টোবর রাত এগারোটায় যুক্তরাজ্যের ইউরোপীয় ইউনিয়ন ছেড়ে যাওয়ার (ব্রেক্সিট) কথা  রয়েছে। আর প্রধানমন্ত্রী বারবারই বলেছেন, চুক্তি হোক বা না হোক নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ব্রেক্সিট কার্যকর হবে। তবে ব্রেক্সিটমন্ত্রী স্টিফেন বারক্লে বুধবার আইনপ্রণেতাদের বলেছেন প্রধানমন্ত্রী আইন অনুযায়ী কাজ করবেন।

/জেজে/

লাইভ

টপ