দুর্নীতি থাকলেই সবকিছু অচল হয়ে যায় না: নোবেলজয়ী অভিজিৎ

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৮:০৪, অক্টোবর ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:০৫, অক্টোবর ১৭, ২০১৯

কোনও একটি বিষয় দারিদ্র বিমোচন আটকে রাখতে পারে না উল্লেখ করে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক ব্যানার্জি বলেছেন, একটি দেশে দুর্নীতি থাকলেই সবকিছু অচল হয়ে যায় না। বিবিসি বাংলাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে সদ্য অর্থনীতিতে নোবেল জয়ী এই অর্থনীতিবিদ বলেছেন, ধনীদের কাছে কুক্ষিগত থাকা বিপুল পরিমাণ সম্পদের যে সামান্য অংশ ছিটকে দরিদ্রদের কাছে যাচ্ছে, তাতেই তাদের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটছে।নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক ব্যানার্জি

বিশ্বের দারিদ্র্য লাঘবে অবদান রাখায় অর্থনীতিতে অমর্ত্য সেনের পর দ্বিতীয় বাঙালি হিসেবে নোবেল পেয়েছেন অভিজিৎ বিনায়ক ব্যানার্জি। গত সোমবার (১৪ অক্টোবর) বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্সেস অভিজিৎ ব্যানার্জিসহ ৩ নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদের নাম ঘোষণা করে। উন্নয়ন অর্থনীতির মধ্য দিয়ে দারিদ্র্য বিমোচনে অবদান রাখার স্বীকৃতিস্বরূপ তাদের এই পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। পুরস্কারপ্রাপ্ত বাকি দুই অর্থনীতিবিদ হলেন অভিজিতের স্ত্রী ফরাসি নাগরিক অ্যাস্থার ডাফলো এবং মার্কিন নাগরিক মাইকেল ক্রেমার।

বৃহস্পতিবার বিশ্ব দারিদ্র বিমোচন দিবস উপলক্ষে বিবিসি বাংলাকে সাক্ষাৎকার দেন এই অর্থনীতিবিদ। সেখানে তিনি বলেন, দারিদ্র বিমোচনে অনেক সমাধান লাগবে, এর সঙ্গে অনেক বিষয় জড়িত। তিনি বলেন, ‘দুর্নীতি থাকলেই সবকিছু অকেজো হয়ে যাবে তা নয়। মানে দুর্নীতির ভেতরেও অনেক কিছু হয়, পরিবর্তন হয়। যে দেশে দুর্নীতি আছে সে দেশে পরিবর্তন আটকে থাকে না’। ভারতীয় এই অর্থনীতিবিদ বলেন, যেসব মানুষ দুর্নীতিতে জড়িয়ে থাকে তাদেরও ভোটে জেতার আশা থাকে।

ইন্দোনেশিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট সুহার্তোর প্রসঙ্গ উল্লেখ করে অভিজিৎ বলেন, অনেকেই বলে থাকেন তিনি দুর্নীতিগ্রস্থ প্রেসিডেন্ট ছিলেন। তবে ইন্দোনেশিয়ায় সবার জন্য স্কুল এবং অপুষ্টি দূর করার উপর জোর দিয়েছিলেন তিনি।

অভিজিতের সঙ্গে এই বছর নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন তার ফরাসি স্ত্রী অ্যাস্থার ডাফলো। পুরস্কারপ্রাপ্তির পর ডাফলো বলেছেন, বিশ্ব অর্থনীতি থেকে গত ৩০ বছরে  দুটি গ্রুপ খুব লাভবান হয়েছে। একটি গ্রুপ অতি ধনী এবং অপরটি অতি দরিদ্র। তাহলে মধ্যবিত্তরা বিপাকে পড়ছে কিনা জানতে চাইলে অভিজিৎ ব্যানার্জি বলেন, হ্যাঁ, তারা বিপাকে পড়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে মধ্যবিত্তরা বিপাকে পড়েছে, দরিদ্ররাও বিপাকে পড়েছে। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে যারা দরিদ্র পৃথিবীতে তারা মধ্যবিত্ত। সেকারণে তারাও বিপাকে পড়েছে। অভিজিৎ বলেন, পৃথিবীর দরিদ্র দেশের দরিদ্র মানুষেরা বিপাকে পড়েনি। যেমন ভারত, বাংলাদেশে, পাকিস্তান ও চীনের দরিদ্র মানুষদের উন্নতি হয়েছে।

পৃথিবীর সম্পদ ধনীদের কাছে কুক্ষিগত হচ্ছে উল্লেখ করে অভিজিৎ বলেন, সেই সম্পদ থেকে যে সামান্য অংশ ছিটকে যাচ্ছে তার অংশ পেয়েই গরীবেরা এগিয়ে যাচ্ছে। কারণ তারা এত বেশি দরিদ্র যে সামান্য অংশেও তারা অনেক এগিয়ে যাচ্ছে।

 

/জেজে/বিএ/

লাইভ

টপ