এল চ্যাপোর ছেলেকে ছেড়ে দিয়ে ‘সঠিক কাজ’ করেছে পুলিশ: মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২২:৪১, অক্টোবর ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:৪২, অক্টোবর ১৮, ২০১৯

মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাডোর বলেছেন, মাদক সম্রাট এল চ্যাপোর ছেলে ওভিডিও গুজম্যানকে ছেড়ে দিয়ে পুলিশ সঠিক কাজ করেছে। বৃহস্পতিবার নিরাপত্তাবাহিনী কুলিয়াকান শহরে ওভিডিওকে গ্রেফতার করতে গেলে মাদকচক্রের সদস্যদের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধ শুরু হয়। বন্দুকযুদ্ধের মুখে এল চ্যাপোর ছেলেকে ছিনিয়ে নেয় মাদকচক্র। এই ঘটনার পর শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি করেছেন মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট।

এল চ্যাপোর মাদক ও অপরাধ চক্র মেক্সিকো ছাড়িয়ে যুক্তরাষ্ট্রসহ আমেরিকার বিভিন্ন দেশে কোকেন, হেরোইন, মারিজুয়ানা ও মেথাম্ফেটামাইন পাচারের জন্য কুখ্যাত। ২০১৫ সালে মেক্সিকোর সুরক্ষিত কারাগার থেকে টানেল খুঁড়ে পালিয়েছিল গুজমান। আবার ধরা পড়ার পর ২০১৭ সালে তাকে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

বৃহস্পতির নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা দেশটির পশ্চিমাঞ্চলীয় কুলিয়াকান নগরীতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে। এসময় সেখানে উভয় পক্ষের মধ্যে ব্যাপক বন্দুকযুদ্ধ হয়। কুলিয়াকান নগরীতে অনেকক্ষণ ধরে চলা এ ব্যাপক বন্দুকযুদ্ধের সময় রাজপথে অনেক গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। এতে আতঙ্কগ্রস্ত স্থানীয় বাসিন্দরা পালানোর জন্য দৌঁড়াতে থাকে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানায়, বন্দুকযুদ্ধে অন্তত আটজন নিহত ও অপর একুশ জন আহত হয়েছেন। এছাড়া সড়কে বেশ কিছু যানবাহনে অগ্নিসংযোগ করা হয়।

মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট দাবি করেন, মাদক সম্রাটের ছেলেকে গ্রেফতার না করার সিদ্ধান্তের ফলে অনেক মানুষের জীবন বেঁচে গেছে। যে কর্মকর্তারা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা সঠিক কাজ করেছেন।

গুজম্যান পরিবারের এক আইনজীবী জানিয়েছেন, বন্দুকযুদ্ধের সময় ওভিডিও জীবিত ও মুক্ত ছিলেন।

 

 

/এএ/

লাইভ

টপ