মোদির 'সংস্কার ভাবনা'কে স্বাগত জানালেন অভিজিৎ ব্যানার্জি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৫:৪৬, অক্টোবর ২৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৫:৪৮, অক্টোবর ২৩, ২০১৯

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে মঙ্গলবার সকালে সাক্ষাৎ করেছেন এবছরের নোবেলজয়ী ভারতীয় অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ ব্যানার্জি। দিল্লির লোককল্যাণ মার্গে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে এই সাক্ষাতের সময় দুজন বেশ কিছু সময় মতবিনিময় করেন। সাক্ষাতের পর নরেন্দ্র মোদির চিন্তা-ভাবনাকে অভিনব আখ্যা দেন অভিজিৎ। আর এক টুইট বার্তায় মোদি বলেছেন, সাধারণ মানুষের আত্মনির্ভরতা বাড়াতে নোবেল জয়ী প্রচেষ্টা সত্যিই উল্লেখযোগ্য।

উন্নয়ন অর্থনীতির মধ্য দিয়ে দারিদ্র্য বিমোচনে অবদান রাখার স্বীকৃতিস্বরূপ এবার তিন অর্থনীতিবিদকে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে একজন ভারতীয় বংশোদ্ভূত বাঙালি অভিজিৎ ব্যানার্জি। পুরস্কারপ্রাপ্ত বাকি দুই অর্থনীতিবিদ হলেন অভিজিতের স্ত্রী ফরাসি নাগরিক অ্যাস্থার ডাফলো এবং মার্কিন নাগরিক মাইকেল ক্রেমার।

যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত অভিজিৎ ব্যানার্জি সম্প্রতি ভারত সফরে এসেছেন।  স্ত্রীর সঙ্গে যৌথভাবে লেখা ‘গুড ইকোনোমিকস ফর হার্ড টাইমস: বেটার অ্যান্সার টু আওয়ার বিগেস্ট প্রবলেমস’ বইয়ের প্রচার উপলক্ষে ভারতে এসে মঙ্গলবার নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি।

বৈঠক থেকে বেরিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে নিজেকে সম্মানিত মনে করার কথা জানান অভিজিৎ। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বেশ কিছু সময় ধরে অনেক বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে জানিয়ে এই অর্থনীতিবিদ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর চিন্তাধারা বেশ অভিনব। দেশ পরিচালনার ক্ষেত্রে আমলাতন্ত্রের সংস্কার করতে চান তিনি। আমলাতন্ত্রকে আরও বেশি দায়িত্বশীল করে তুলতে সাধারণ মানুষের মতকে গুরুত্ব দিতে চান। যাতে মানুষ আরও বেশি করে উপকৃত হয়’। মোদির এই চিন্তা-ভাবনাকে স্বাগত জানান এই নোবেলজয়ী।

অভিজিৎ ব্যানার্জির সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে টুইট বার্তায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি লেখেন, অভিজিতের সাফল্যে ভারত গর্বিত। তিনি লেখেন, সাধারণ মানুষের আত্মনির্ভরতা বাড়াতে তার প্রচেষ্টা সত্যিই উল্লেখযোগ্য। বিভিন্ন বিষয়ে আমাদের সুষ্ঠু ও গভীর আলোচনা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, নোবেলজয়ী হিসেবে নাম ঘোষণার পর ম্যাসাচুসেটস ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজিতে (এমআইটি) এক বক্তৃতায় মোদি সরকারের আমলে ভারতের অর্থনীতির সমালোচনা করেন অভিজিৎ ব্যানার্জি।

 

/জেজে/এএ/

লাইভ

টপ