তুরস্ক যুদ্ধবিরতি ‘স্থায়ী’ করলে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করবে যুক্তরাষ্ট্র

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০০:০০, অক্টোবর ২৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:০২, অক্টোবর ২৪, ২০১৯

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, সিরিয়ায় তুরস্ক যুদ্ধবিরতি স্থায়ী করলে তাদের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করবে ওয়াশিংটন। বুধবার (২৩ অক্টোবর) হোয়াইট হাউজে দেওয়া এক বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন। কাতারভিত্তিক সংবাদমাদ্যম আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

২০১৯ সালের ৯ অক্টোবর তুর্কি সীমান্তবর্তী সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে ‘অপারেশন পিস স্প্রিং’ নামে সামরিক অভিযান শুরু করে তুরস্ক। এ অভিযানের মাধ্যমে অঞ্চলটি থেকে আইএস জঙ্গি ও কুর্দি বিদ্রোহীদের বিতাড়িত করে সেখানে একটি সেফ জোন প্রতিষ্ঠা করতে আগ্রহী আঙ্কারা। এ সেফ জোনে দীর্ঘদিন ধরে তুরস্কে বসবাসরত সিরীয় শরণার্থীদের বসবাসের ব্যবস্থা করতে চায় আঙ্কারা। তুর্কি অভিযানের আগে সেখান থেকে সেনা প্রত্যাহার করে নেওয়ার ঘোষণা দেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পরে ওয়াশিংটনের মধ্যস্থতায় গত ১৭ অক্টোবর ৫ দিনের যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয় আঙ্কারা। যা বুধবার (২৩ অক্টোবর) শেষ হয়। যুদ্ধবিরতিকালে তুর্কি বাহিনী সিরিয়াতেই অবস্থান করছিল। তবে অভিযান শুরুর পর তুরস্কের দুইজন মন্ত্রী এবং তিন জন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র।

ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, “তুরস্ক যুক্তরাষ্ট্রকে জানিয়েছে তারা সিরিয়ায় যুদ্ধবিরতি ‘স্থায়ী’ করবে। যদি তারা যুদ্ধ বন্ধ করে চুক্তি স্থায়ী করে তাহলে তাদের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হবে।” তিনি আরও বলেন, ‘আমরা অসন্তুষ্ট হই এমন কিছু না ঘটলে নিষেধাজ্ঞাগুলো তুলে নেওয়া হবে।’

সিরিয়ায় কুর্দিদের বিপক্ষে অভিযানের পর চলতি মাসের গোড়ার দিকে ওই নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি তুরস্কের সঙ্গে ১০০ বিলিয়ন ডলারের বাণিজ্য চুক্তি স্থগিত করেন ট্রাম্প। সেই সাথে আঙ্কারা ইস্পাত আমদানির ওপর ৫০ শতাংশ শুল্ক বৃদ্ধি করে ট্রাম্প প্রশাসন।

/এইচকে/

লাইভ

টপ