behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

তুরস্ককে বারবার ভুগতে হবে: পুতিন

বিদেশ ডেস্ক১৯:২৬, ডিসেম্বর ০৩, ২০১৫

putinসিরিয়া সীমান্তে রুশ বিমানকে ভূপাতিত করার জন্য ‘বারবার’ ভুগতে হবে বলে তুরস্ককে সতর্ক করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি বলেন, ‘আমরা তাদের মনে করিয়ে দেব তারা কী করেছে, এজন্য তাদেরকে ভুগতে হবে।’
বৃহস্পতিবার দেশটির সংসদে জাতির উদ্দেশে দেওয়া বার্ষিক ভাষণে পুতিন এ কথা বলেন।
পুতিন বলেন, তুরস্কের এ ঘটনাকে  ‘সন্ত্রাসীকে সহযোগিতা’ হিসেবে আখ্যায়িত করা থেকে সরে আসবে না রাশিয়া।  
সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় আন্তর্জাতিক ফ্রন্ট গড়ে তোলার আহ্বানও জানান রুশ প্রেসিডেন্ট।  এছাড়া তিনি সন্ত্রাসী গ্রুপকে সহযোগিতা দেওয়ার দ্বৈত নীতি থেকেও সরে আসার আহ্বান জানান।
বক্তব্যে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) কাছ থেকে তেল কেনার জন্য তুরস্কের কঠোর সমালোচনা করেন পুতিন।
তুরস্কের এফ-১৬ যুদ্ধবিমান দিয়ে রাশিয়ান এসইউ-২৪ বিমান ভূপাতিত করার ঘটনাকে ‘বিশ্বাসঘাতকতাপূর্ণ যুদ্ধাপরাধ’ হিসেবেও উল্লেখ করেন।
দুই বিশ্বযুদ্ধে নাৎসিদের সঙ্গে লড়াইয়ের উদাহরণ টেনে পুতিন বলেন, ‘আমরা বিধ্বংসী, নৃশংস আদর্শবাদের মোকাবেলা করছি... আইএসের বিরুদ্ধে আমাদের শক্তিশালী ঐক্যবদ্ধ ফ্রন্ট দরকার।’
পুতিন আরও বলেন, ‘সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় সব সভ্য দেশের এগিয়ে আসা উচিত।’
এদিকে, রুশ-তুরস্ক বাগযুদ্ধ চললেও রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাবুসোগলুর সঙ্গে বৃহস্পতিবার বৈঠক করার কথা রয়েছে। অর্গানাইজেশন ফর সিকিউরিটি অ্যান্ড কো-অপারেশন ইন ইউরোপ (ওএসসিই) সম্মেলনের পাশাপাশি তারা আলাদাভাবে বৈঠক করবেন। 

সিরিয়ায় আইএস ও জিহাদি গ্রুপকে মোকাবেলায় বাশার আল আসাদকে বিমান হামলার মাধ্যমে সহযোগিতা করছে বলে দাবি করে আসছে রাশিয়া । তবে পশ্চিমী বিশ্লেষকরা বলছেন, রাশিয়া শুধু আসাদবিরোধীদের লক্ষ্য করে বোমাবর্ষণ করছে।

গত ২৪ নভেম্বর সিরিয়া সীমান্তে একটি রুশ জঙ্গিবিমানকে গুলি করে ভূপাতিত করে তুরস্ক।  এ ঘটনায় বিমানটির একজন পাইলট নিহত হন। এছাড়া, আরেক পাইলটকে উদ্ধার করা হয়।  এরপর থেকে তুরস্ক ও রাশিয়ার সম্পর্কে টানাপোড়েন চলছে। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইতোমধ্যে অভিযোগ করেছেন, তেলের পাইপলাইন সুরক্ষা করতেই তুরস্ক রুশ বিমানকে ভূপাতিত করেছে।

সর্বশেষ বুধবার রাশিয়ার পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয় আইএসের সঙ্গে তেল ব্যবসায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট ও তার পরিবার জড়িত। তবে আইএসের সঙ্গে কোনও ধরনের যোগাযোগের কথা বরাবরই অস্বীকার করে আসছে তুরস্ক। সেইসঙ্গে গুলি করে রুশ বিমান ভূপাতিত করার বিষয়ে রাশিয়ার কাছে ক্ষমা না চাওয়ার বিষয়েও অনড় রয়েছে দেশটি। এ ঘটনায় এরইমধ্যে রাশিয়া তুরস্কের ওপর অর্থনৈতিক অবরোধ আরোপ করেছে।  আকাশসীমা লঙ্ঘনের কারণেই বিমানটিকে গুলি করা হয়েছে বলে তুরস্ক দাবি করে। তবে,  রাশিয়া তা অস্বীকার করে আসছে।  সূত্র: বিবিসি, আল-জাজিরা।

/এএ/এফইউ/

লাইভ

Nitol ad on bangla Tribune
টপ