Vision  ad on bangla Tribune

ভেনেজুয়েলায় ডিক্রি জারি, অর্থনীতিতে কঠোর রাষ্ট্রীয় নিয়ন্ত্রণ আরোপ

বিদেশ ডেস্ক১৬:৪৪, জানুয়ারি ১৬, ২০১৬

নিকোলাস মাদুরোব্যাপক মুদ্রাস্ফীতি আর করুণ প্রবৃদ্ধিজনিত সংকটে থাকা ভেনেজুয়েলায় অর্থনৈতিক জরুরি অবস্থা ঘোষণা করলো দেশটির সরকার। ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো ডিক্রি জারির মাধ্যমে দুই মাসের জন্য এই জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন। ডিক্রির মাধ্যমে ব্যবসা-বাণিজ্য, শিল্প উৎপাদন এবং মুদ্রা স্থানান্তরের উপর আরও বেশি রাষ্ট্রীয় নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা হলো।
এক বছরের মধ্যে সরকারের প্রথম অর্থনৈতিক ডাটা প্রকাশের পরই এমন উদ্যোগ নেওয়া হলো। ওই অর্থনৈতিক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, তেলের দাম কমে যাওয়ার কারণে ভেনেজুয়েলায় মন্দা বেড়েছে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত বছরের প্রথম নয় মাসে ভেনেজুয়েলার অর্থনীতি সাড়ে ৪ শতাংশ সংকুচিত হয়েছে। ২০১৪ সালের শেষ থেকে এ পরিসংখ্যান গোপন রাখার কারণে মাদুরো সরকারের তোপের মুখে পড়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।
শুক্রবার জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে দেশের অর্থনৈতিক সংকটকে দুর্যোগ হিসেবে উল্লেখ করে মাদুরো বলেন, ‘আমরা একটি দুর্যোগের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। কেউ কেউ এটাকে কেবল আমার জন্য দুর্যোগ বলে মনে করে থাকেন যা ঠিক নয়। এটি আদতে এমন এক পরিস্থিতি যার কারণে ভেনেজুয়েলার প্রত্যেকটি মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হবে।’

কংগ্রেসে বিরোধী মধ্য-ডানপন্থীদল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার পর প্রথমবারের মতো প্রেসিডেন্ট মাদুরো কংগ্রেসে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন। আর এর কয়েক ঘণ্টা পূর্বে অর্থনৈতিক জরুরি অবস্থার ঘোষণা দেওয়া হয়। তবে কংগ্রেসের দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে বিরোধী নেতৃত্বাধীন জাতীয় পরিষদের ডিক্রিটি অনুমোদন কিংবা পাস করার ক্ষমতা রয়েছে।

ভেনেজুয়েলায় বিশ্বের সর্বাধিক তেলের মজুদ রয়েছে বলে ধারণা করা হয়। তেলের মূল্য হ্রাসের কারণে গত ১৮ মাসে দেশটির প্রায় ৬০ শতাংশ আয় কমে গেছে। দেশটির জাতীয় আয়ের ৯৬ শতাংশই আসে তেল রপ্তানি থেকে। সূত্র: আলজাজিরা

/এফইউ/বিএ/

samsung ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ