Vision  ad on bangla Tribune

বার্বি যখন হিজার্বি

বিদেশ ডেস্ক২১:১৩, ফেব্রুয়ারি ০৭, ২০১৬

হিজার্বিবার্বি ডলের শুরুর দিনগুলোতে এটি ছিলো একেবারেই একমুখী সৌন্দর্যের ধারণাপুষ্ট। বার্বি মানেই তখন ‘গোলাপি রঙের স্লিম ফিগার’; বার্বি মানেই যেন পাশ্চাত্যের বর্ণবাদী কথিত সুন্দরতা। তবে দিনকে দিন একদিকে বিস্তৃত হয়েছে প্রতিরোধ। অন্যদিকে আবার বাজারও হয়েছে বিস্তৃত। তাই বার্বি থাকতে পারেনি পুরোনো অবয়বে। নারীবাদীদের সমালোচনার তোপে, কিংবা বর্ণবাদের অভিযোগ মোকাবেলা করতে কিংবা পাশ্চাত্যের বাইরে বাজার ধরতে গিয়েই বদলে ফেলতে হয়েছে বার্বিকে। বার্বি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান মানতে বাধ্য হয়েছে, সৌন্দর্য মানে বৈচিত্র্য। কেননা তা না মানলে বিস্তৃত বাজারের বিচিত্র ক্রেতার কাছে পৌঁছানো সম্ভব না।
এভাবেই শিশুদের কাছে বৈচিত্রময় সৌন্দর্যের ধারণাকে বিস্তৃতভাবে তুলে ধরতে অনেক দিন ধরেই বার্বি ডলকে ভিন্ন ভিন্ন রূপে হাজির করার প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক খেলনা প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান ম্যাটেল। শিশুদের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয় এই পুতুলটিকে হাজির করা হচ্ছে কখনও গায়ে রংয়ে কখনওবা দেহের আকারের ভিন্নতার মাধ্যমে। বার্বি ডল তৈরির ৫৭ বছরের ইতিহাসে এ পর্যন্ত নানা রূপেই হাজির করা হয়েছে পুতুল মডেলটিকে। ম্যাটেলের তথ্য অনুযায়ী, চিকন শরীরের মূল বার্বি ডলকে এখন চার ধরনের দেহাকৃতিতে উপস্থাপন করা হচ্ছে। যদিও ১৯৮০ সাল থেকে কালো রংয়ের বার্বি তৈরি করা হচ্ছে; তবে এখন ৭ ধরনের গায়ের রং, ২২ রংয়ের চোখ এবং বিভিন্ন হেয়ারস্টাইলবিশিষ্ট বার্বি ডল পাওয়া যায়।

তবে পলিটিক্যাল ইসলামের এই রমরমার যুগে, বার্বি ডলের এই কথিত বৈচিত্র্যে বাড়তি মাত্রা যোগ করলেন এক নাইজেরীয় নারী। ইসলাম আর পাশ্চাত্যের দ্বন্দ্ব যখন বাজারের অপরিহার্য অনুষঙ্গ, তখন সেই দ্বন্দ্বকেই যেন পণ্যে রূপান্তর করলেন তিনি। নিজে যে পোশাক পরেন ঠিক তেমন করেই বার্বিকে সাজাতে চাইলেন ২৪ বছর বয়সী শিক্ষার্থী হানিফা আদম। আর যেই ভাবা সেই কাজ। বার্বির গোটা শরীর কাপড়ে ঢেকে দিলেন তিনি। আর বার্বির মাথায় পরিয়ে দিলেন হিজাব। আর এর নাম দিলেন হিজার্বি।

হিজার্বি আর হানিফার পাশাপাশি ছবি

প্রাথমিকভাবে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে পাওয়া যাবে ২৪ বছর বয়সী হানিফা আদমের তৈরি হিজার্বি। আর মার্চের মাঝামাঝি যুক্তরাজ্যের বড় বড় খেলনা বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানে পাওয়া যাবে এটি। প্রতিটি হিজার্বির দাম পড়বে ৯.৯৯ পাউন্ড করে।

স্টাইল.মিককে হানিফা আদম বলেন, ‘ইন্সটাগ্রামে বার্বি স্টাইলের ছবি দেখে আমি বার্বিকে আমার মতো পোশাকে সাজানোর অনুপ্রেরণা পেলাম। কীভাবে কাজটি করা যায় তা নিয়ে তিন মাস ধরে ভাবতে লাগলাম। কারণ ওই সময়ে আমি যুক্তরাজ্যে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নিচ্ছিলাম। এরপর আমি নাইজেরিয়ায় ফিরলাম, একটি শপিং মলে গেলাম, একটি পুতুল কিনলাম, তাকে পোশাক পরালাম, আর তারপরই শুরু।’

হিজাব পরিহিত বার্বিবর্তমানে হানি নামের একটি লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড পরিচালনা করছেন হানিফা। ইন্সটাগ্রামে হিজার্বি সম্পর্কে জানিয়ে বিভিন্ন ছবি পোস্ট করেছেন তিনি। ওই ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টে অনুসারীর সংখ্যা ১৭ হাজার। হানিফা বলেন, ‘আমি কালো পুতুলকেও আমার মত হিজাব পরাতে চাই। আন্তর্জাতিকভাবে কিছু পুতুলের জন্য অর্ডার করেছি আমি এবং শিগগিরই সেগুলো আমার হাতে পৌঁছে যাবে বলে আশা করছি। মূলত হাতে যা ছিল তা দিয়েই শুরু করেছি আমি।’

কখন থেকে হিজার্বি কিনতে পাওয়া যাবে তা জানিয়ে ইন্সটাগ্রামে দেওয়া এক পোস্টে হানিফা বলেন, ‘আমরা একটি ওয়েবসাইট তৈরির প্রক্রিয়া চালাচ্ছি এবং শিগগিরই হিজার্বিকে সবার হাতের নাগালে পৌঁছে দেওয়ার জন্য উৎপাদন শুরু করছি।’
ইন্সটাগ্রামে হিজার্বির পাশাপাশি নিজের ছবিও প্রকাশ করেছেন হানিফা। সূত্র: পিটিআই, টাইমস অব ইন্ডিয়া

 

/এফইউ/বিএ/

samsung ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ